আড়াইহাজারে ৪ লাশের একটি বাসচালক লুৎফর মোল্লার

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার সাতগ্রাম পাচঁরুখী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে থেকে উদ্ধার হওয়া গুলিবিদ্ধ ৪ যুবকের মধ্যে একজনের পরিচয় সনাক্ত হয়েছে। তার নাম লুৎফর মোল্লা (৩৬)। তার বাবার নাম মনসুর মোল্লা। সে রাজধানী ঢাকার রামপুরায় পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকতেন। পেশার বাস চালক।

রোববার (২১ অক্টোবর) বেলা পৌনে ৩টায় নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে গিয়ে রেশমা আক্তার শরীরে টি-শার্ট দেখে একজনের লাশ সনাক্ত করেন।  লাশটি তার স্বামী লুৎফর মোল্লার। এসময় তিনি হাউমাউ করে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তার সাথে আসা তার বড় ভাই ইউনুছ মোল্লা ও নিহতের স্বজনরাও আসেন। স্বজনদের কান্নায় হাসপাতালের পরিবেশ ভারি হয়ে উঠে।

নিহত লুৎফরের স্ত্রী রেশমা জানান, তার স্বামী বাস চালক। শুক্রবার বিকাল ৫টার দিকে বাসা থেকে বের হন। এবং সন্ধ্যা ৭টার দিকে গাড়ি নিয়ে রাস্তায় নামেন। রাত ১টায় স্বামীর সাথে তার শেষ বারের মতো কথা হয়। এরপর থেকে স্বামীর মোবাইল ফোন বন্ধ পান। রোববার সকালে টেলিভিশনে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ৪ জনের লাশ উদ্ধারের খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে ছুটে আসেন তিনি।
নিহত লুৎফর মোল্লার এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। ছেলে রিশাদ ৮ম শ্রেণি ও মেয়ে লিজা ৪র্থ শ্রেণিতে পড়ে।
উল্লেখ রোববার (২১ অক্টোবর) সকালে উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সাতগ্রাম ইউনিয়নের পাচঁরুখী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে থেকে ৩ যুবকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এবং লাশের পাশ থেকে দুটি পিস্তল ও একটি মাইক্রোবাস উদ্ধার করা হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য পুলিশ লাশগুলো নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে নিয়ে আসে।