বিশ্বকাপ প্রস্তুতি এখান থেকেই শুরু মনে করছেন মাশরাফি

ক্রীড়া ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ):  প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে বলেই যে সমীহ করবে না বাংলাদেশ সেটি ভাববার সুযোগ নেই। ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অধিনায়ক উল্টো ধন্যবাদ দিয়েছেন জিম্বাবুয়েকে যে তাদের সেরা দলটা খেলতে এসেছে বলে।
বিশ্বকাপের বাকি আছে আর কয়েকটা মাস। তার আগে এই সিরিজসহ চারটা সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। অধিনায়ক তাই এখন থেকেই দলের প্রস্তুতি সেরে নেয়ার ব্যাপারে উদগ্রীব।
‘আমি মনে করি এখান থেকেই আমাদের পরিকল্পনা শুরু করে দেয়া উচিৎ। প্রতিটা আন্তর্জাতিক ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ আমাদের জন্য। আমি বলবো জিম্বাবুয়ে তাদের সেরা দলটা আসায় আমাদের জন্য ভালো হয়েছে।’
গতকাল শুক্রবার বিকেএসপিতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল বিসিবি একাদশ আর জিম্বাবুয়ের মধ্যে প্রস্তুতি ম্যাচ। এই ম্যাচে প্রতিপক্ষের ১০ উইকেটই নিয়েছে পেসাররা। এ নিয়ে কি ভাবছেন অধিনায়ক?
‘আমরা সবাই জানি মিরপুরের উইকেট কেমন আচরণ করে। আগে থেকেই জানি এখানে ব্যাটিং করা কঠিন হবে। ভালো উইকেট আশা করছি তবে পেসারদের চেয়ে এগিয়ে রাখছি স্পিনারদের। এই উইকেটে ২৫০ বা ২৬০ রান করতে পারলে ম্যাচ জেতাটা সহজ হয়ে যায়।’
বিশ্বকাপ পরিকল্পনায় এই দল থেকে কারা এগিয়ে থাকবে এমন প্রশ্নে মাশরাফি বলেন, সাকিব, তামিম, মুশফিক, রিয়াদরা এগিয়ে আছে। তারা সেভাবেই নিজেকে প্রস্তুত করছে। এরপরও যদি আল্লাহ না করুক কেউ চোটে পড়ে তাহলে তার বিকল্প ভাবতেই হবে। লিটন, রুবেল, মুস্তাফিজ এরাও ভালো করছে। আমাদের ব্যাকআপ প্লেয়ার খুবই কম তবুও এখন অনেকে আসছে। ফজলে রাব্বিকে নেয়া হয়েছে দলে, আছে সাইফউদ্দিনও। ওদের নিয়েও সেভাবে প্ল্যান করা হচ্ছে।
এছাড়া অধিনায়ক কথা বলেন নিজের চোটের সবশেষ অবস্থা নিয়েও।
‘আল্লাহ’র রহমতে এখন অনেকটা ভালো আছি। মুশফিকও রিকভার করে নিয়েছে। তবে রুবেল শেষ কয়দিন হাসপাতালে ছিল। তাই এখনও ওকে নিয়ে ভাবছি কি করা যায়।’
মাশরাফি এটাও মনে করিয়ে দেন, এই সিরিজ জিতলে অনেক কিছু হয়ে যাবে ঠিক তা না, তবে হারলে অনেক সমালোচনা হজম করতে হবে।