ত্রিশ তারিখের পর চোখের পর্দা থাকবে না : শামীম ওসমান

ফতুল্লা(আজকের নারায়নগঞ্জ):   সাংসদ শামীম ওসমান বলেছেন,আগামী দুইটা মাস নেতাকর্মীদের চোখ কান খোলা রাখার আহ্বান জানিয়ে এবং জনগণের শক্তির সামনে কোনো শক্তি নাই উল্লেখ করে শামীম ওসমান বলেছেন, আমরা পুলিশ বিডিআর  উপর ভরসা করে রাজনীতি করবো না। আমি আবারও বললাম। আমি ত্রিশ তারিখের পর থেইকা কাউরে চিনি না। ত্রিশ তারিখের পর থেইকা চোখের পর্দা থাকবে না।

শনিবার (২০ অক্টোবর) বিকেলে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংকরোডে অবস্থিত নাসিম ওসমান মেমোরিয়াল পার্ক (নম পার্ক) এ আয়োজিত কর্মী সভায় ওই কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ডাইরেক্ট দুশমন যে বিএনপি জামাত, ওকে ফাইন, মাফ আছে। কিন্তু দোদলবান্দা করবেন, মাফ নাই, পরিস্কার কথা। পিছন দিয়া শুরু করবেন? হবে না। কাউরে মোস্তাক হইতে দিমু না। যদিও ইনশাল্লাহ আমার এলাকায় নাই। যদি এই রকম কেউ থাইকা থাকে নিজেদের মধ্যে, সংশোধন করতে বলেন। কারণ, এইটা হইলো শেষ লড়াই এবং জেনে রাখেন, আমরা কারো ক্ষতি করি নাই এই জীবনে। এই জন্য আমাদের সাহস বেশি।

ওরা আপনার ঘরের বউ নিয়া যাবে এইবার। ওরা সুযোগ পেলে আপনার মেয়েকে রেপ করবে, আমার মেয়েকে রেপ করবে। ওরা মানুষ না, ওরা পশু। ওরা মানুষ পুইড়া মানুষ মাইরা ফেলায়। ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য জীবন্ত মানুষকে আগুন দিয়া পুড়াইয়া দেয় ওরা। ওরা ৭১ এ মারছে, ৭৫ এ মারছে, ১৪ তে মারছে, ২১ আগস্টে মারছে, ১৬ জুন মারছে নারায়ণগঞ্জে। ওরা নরপশু, ওরা ইবলিশ।

কর্মী সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. সানাউল্লাহ, ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম সাইফুল্লাহ বাদল, সাধারন সম্পাদক শওকত আলী, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন ভূইয়া সাজনু, যুবলীগ নেতা আব্দুল খালেক, থানা সেচ্ছাবেকলীগের সভাপতি ফরিদ আহমেদ লিটন, ফাইজুল হক, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানী প্রমূখ।