জাতীয় পার্টির মঞ্চে গানবাজনা বন্ধ করে দেয় খেলাফতে মজলিশ

রাজনৈতিক ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ): জাতীয় পার্টির নেতৃত্বে সম্মিলিত জাতীয় জোটের মহাসমাবেশ শুরুর আগেই সেখানে শুরু হয় হাতাহাতি। সাংস্কৃতিক মঞ্চে গানবাজনাও বন্ধ করে দেয় খেলাফতে মজলিশ।

শনিবার (২০ অক্টোবর) সকাল থেকেই ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জড়ো হয়েছেন জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা। তাদের হাতে নেতাদের ব্যানার-ফেস্টুন শোভা পাচ্ছে। এরশাদের লাঙ্গলের পক্ষে স্লোগান দিতে দেখা গেছে।

এরই মধ্যে মহাসমাবেশস্থলে এসে পৌঁছেছে দলগুলোর কেন্দ্রীয় নেতা ও সমর্থকরা। একসময় সমর্থকদের একাংশের মধ্যে চেয়ার ও লাঙ্গল ছোড়াছুড়ির ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে কেন্দ্রিয় নেতাদের হস্তক্ষেপে তা নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায,  শোডাউন করাকে কেন্দ্র করে টাঙ্গাইলের মনোনয়ন প্রত্যাশী মোজাম্মেল ও নবাগত মনিরের নেতা-কর্মীরা বিবাদে জড়ায়। স্লোগান পাল্টা স্লোগান থেকে হাতাহতি, এক পর্যায়ে একে অপরকে চেয়ার ছুরে মারে। এসময় দুই গ্রুপের বেশ কয়েকজন কর্মী আহত হন। ভয়ে ছোটাছুটি শুরু করেন উপস্থিত নেতা-কর্মীরা। তাদের থামাতে মঞ্চ থেকে বারবার আহ্বান করা হয়। শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সতর্ক করা হয়। পরে মঞ্চের নির্দেশনায় মোজাম্মেল ও মনির মাঠে নেমে আসলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

দলীয় সংগীত চলাকালে ক্ষুব্ধ হয়ে খেলাফত মজলিশের নেতা-কর্মীরা মঞ্চের দিকে চেয়ার ছুড়ে মারে। সাউন্ডবক্সে চেয়ার মেরে গান বাজনা বন্ধ করে দেয়। এসময় আরেক দফা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়। পরে ইসলামী ফ্রন্টের সাংস্কৃতিক কাফেলা নাত পরিবেশনা করলে পরিস্থিতি শান্ত হয়ে আসে

মহাসমাবেশের মঞ্চের পাশে আরেকটি মঞ্চে সাংস্কৃতিক আয়োজনে গান চলছিল শিল্পী শাহনাজ বেলীর। পরে তা বন্ধ করে দেয় খেলাফতে মজলিশ।