আ‘ লীগ ক্ষমতায় না আসলে কি হবে? না আসলে দেশ থাকবে না

ফতুল্লা(আজকের নারায়নগঞ্জ):     নারায়নগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান বলেছেন, আমার বাবা ৫ বার জেলে গেছেন ৫ বার ৫ ভাই বোন জন্ম নিছি। আমার ছেলে জন্ম নিছে আমি তখন জেলে ছিলাম। আমার বড় ভাইয়ের ছেলে যখন জন্ম নিছে তখন তিনি তখন বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার দাবিতে ভারতে অবস্থান করছেন। সো এটা আমাদের জন্য নতুন কিছু না বাট আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় না আসলে কি হবে? আগে না আসলে কিছুই হতো। কিন্তু এবার না আসলে দেশ থাকবে না। ওরা মরন কামড় দেয়ার চেষ্টা করছে।

শুক্রবার (১৯ অক্টোবর) ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে স্টেডিয়াম সংলগ্ন লামাপাড়া এলাকায় মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওই কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, আমি আল্লাহ কাছে শুকরিয়া করি। শুকরিয়া করি এ জন্য, আমি পুলিশের উপর ভরসা করে রাজনীতি কখনো করি না। আমি সেনা বাহিনীর উপর ভরসা করে রাজনীতি করি না। আমি রাজনীতি করি একমাত্র উপরে আল্লাহ আর নিচে জনগণের উপর ভরসা করে। আমি যেদিন ক্ষমতা শেষ সেদিন থেকে প্রশাসনের সাথে সম্পর্ক রাখি না। তিন পুরুষ ধরে রাজনীতি করে আসছি। একদিনে ৫০ টা মামলা খাওয়া মানুষ আমি। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ৫০ টা মামলা খাইছি আমি। যখন ১৯ বছর বয়সে জেল খাটছি তখন, জেলখানায় পাগলা ঘণ্টি পড়ছে। আমি সেই মানুষ।

শামীম ওসমান বলেন, আমি স্টেজে দাঁড়িয়ে ভন্ডামির বক্তব্য দিই না। রাজনীতি করি আমি আল্লাহকে খুশি করার জন্য, এবাদত করার জন্য। আমি সত্যি কথা বললে, মাদক নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো, সন্ত্রাস নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো এ ব্যাপারে আমার হান্ড্রেড পার্সেন্ট মনোবল, সেটা ছিলো না। এটা না-ও পারতে পারি। চেষ্টা করতেছি গত ৫ বছর ধরে। পাগলের মতো চেষ্টা করতেছে। চেষ্টা পুলিশ প্রশাসন করছে, জনগণও করছে।

মাদক নির্মূলে দুটো জিনিস দরকার উল্লেখ করে তিনি বলেন, অবশ্যই আমরা সফল হবো যদি এভাবে সবাই এগিয়ে আসেন। ওদের সংখ্যা খুব কম। খুব কম এই খারাপ লোকের সংখ্যা। দুনিয়াতে ভালো লোকের সংখ্যা অনেক বেশি। খারপ লোক রোল কলে সুযোগ নেয়। তবে শয়তান কিন্তু আল্লাহর রহমতের সাথে পারে না। আমাদের মনোবল যদি থাকে তাহলে সকল খারাপ কাজকে ওভারকাম করতে পারবো ইনশাল্লাহ।

২৭ তারিখে ওসমানী স্টেডিয়ামে জনসভায় সকলকে দাওয়াত দিয়ে শামীম ওসমান আরও বলেছেন, এদিন আমরা নারায়ণগঞ্জবাসীর পক্ষে কথা বলবো। এদিন আমরা জানান দেবো পুরো বাংলাদেশকে, জানান দেবো আমরা স্বাধীনতার পক্ষে, শেখ হাসিনার কর্মী। আমরা প্রস্তুত আছি, সেটা জানান দেবো পুরো বাংলাদেশকে।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) শাহ মোহাম্মদ মঞ্জর কাদেরের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. মনিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক অঞ্চল) মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী, এক্স ক্যাডেট জেলা শাখার সভাপতি হাজি মো. সাইফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী ভূইয়া, সরকারি তোলারাম বিশ্ববিদ্যালয় এন্ড কলেজের শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জীবন কৃষ্ণ মোদক, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি চন্দন শীল, যুগ্ম সম্পাদক শাহ্ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হাসান নিপু, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মো. জুয়েল হোসেন,থানা আওয়ামীলীগ নেতা লুৎফর রহমান স্বপন,থানা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি ফরিদ আহমেদ লিটন,যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।