বন্দরে যুবদলের ৩ নেতা আটক,মামলায় আসামী ৪০

বন্দর(আজকের নারায়নগঞ্জ):  গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে কেন্দ্র করে নাশকতার প্রস্তুতির অভিযোগে বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকুলের ভাইসহ ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

পরে গ্রেফতারকৃত আটক তিনজনকেসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেছে পুলিশ। মামলায় অজ্ঞাত আরো ৩০ থেকে ৪০ জনকে আসামী করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) সকালে বন্দর থানায় মামলাটি রুজু হয়।

বন্দর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) হারুন অর রশিদ বলেন, গ্রেনেড হামলা মামলার রায় প্রকাশের পর বুধবার গ্রেপ্তারকৃতরা ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে নাশকতার চেষ্টা করে।

গ্রেপ্তারকৃত তিনজনসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখপূর্বক অজ্ঞাতনামা ৩০ থেকে ৪০ জনকে আসামী করে মামলা রুজু করা হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই মোহাম্মদ আলী জানান গ্রেপ্তারকৃত ৩ জনকে ১০ দিনের পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন করে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো বন্দর থানা যুবদলের সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান দুলাল (৪৮), বন্দর থানা যুবদলের সভাপতি আমির হোসেন (৪৩) ও হরিপুর এলাকার আব্দুল করিম মিয়ার ছেলে সানাউল্লাহ (৫২)। এর মধ্যে বন্দর থানা যুবদলের সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান দুলাল বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আতাউর রহমান মুকুলের ভাই।