ভয় পাইয়েন না,মাইক লাগানোর ব্যবস্থাও আমি করমু’

সিদ্ধিরগঞ্জ(আজকের নারায়নগঞ্জ):  নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক সাংসদ বিএনপি নেতা গিয়াসউদ্দিনকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আওয়ামীলীগের বর্তমান  সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, সমস্ত জনগণকে ডাকেন। ভয় পাইয়েন না। মাইক লাগানোর ব্যবস্থাও আমি করমু। আমি পুলিশের হাতে পায়ে ধরে বলবো আপনাকে  যেন গ্রেফতার না করে। আমি একা থাকবো স্টেজে। আপনি আপনার লোক নিয়ে থাইকেন। আসেন একটা চ্যালেঞ্জ নেই।

৯৬ থেকে ২০০১ আর ২০০৮ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত আমি কি করছি আ আপনি কি করছেন। সমান সমান হওয়ার দরকার নাই। আপনি যদি আমার কাজের ৫ ভাগের ১ ভাগও করে থাকেন তাহলে আমি আর নির্বাচন করবো না।

আমি যা করেছি এর পাঁচভাগের একভাগও যদি আপনি করে থাকেন তাহলে আমি ইলেকশন করবো না আপনি করবেন। যেহেতু আপনি আমার সম্পর্কে শ্বশুর তাহলে বলমু দশ ভাগে এক ভাগ হিসেবে আপনার জন্য।

সোমবার (৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সিদ্ধিরগঞ্জের সাইলারোডের চারতলা নামক এলাকায় ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের এক কর্মীসভায় তিনি এসব কথা বলেন। নাসিক ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. জয়নাল আবেদিন।

শামীম ওসমান আরো বলেন, ‘শামীম ওসমান বলে সিংহ পুরুষ’। আমি কবে কইছি সিংহ পুরুষ। আমি জন্ম হয়েছি মানুষের ঘরে। আমার বাবার নাম একেএম সামসুজ্জোহা। আমি আপনার মতো বারে বারে দল পরিবর্তন করি নাই। উনি বলেছেন শামীম ওসমান কাপুরুষ। আমি জানি না। আমি কাপুরুষ কি না।

তবে হ্যাঁ, কাপুরুষ যদি এটাতে হয় যে উনি ক্ষমতায় থেকে ওনার দল ক্ষমতায় আসার আগে আমার দলীয় কার্যালয়ে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তির বিরুদ্ধে কথা বলেছি আর এই অপরাধে বোমা ব্লাষ্ট করে আমার ২০ জন মানুষকে হত্যা করে এটার প্রতিবাদে আমি ওনার কোন লোক মারি নাই বলে কাপুরুষ হই তা হলে আমি কাপুরুষ।’

একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, সিদ্ধিরগঞ্জ আমার শ্বশুরবাড়ির এলাকা।  দেখা যাইবো গিয়াসউদ্দিন আমার সম্পর্কে শ্বশুর। আমি তার জামাই। আমার উচিত তার পক্ষ নেয়া।  কিন্তু সত্য তো সত্যই।

উনি তো ওনার এলাকায় কোন উন্নয়ন করেন নাই, মানুষই তো এই কথা বলে।  মামাতো (বিলুপ্ত সিদ্ধিরগঞ্জ পৌরসভার সাবেক প্রশাসক আব্দুল মতিন প্রধান) বললো, উনি ওনার (গিয়াস উদ্দিন) বাড়ির সামনেই কোন উন্নয়ন করেন নাই।

মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি মজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক হাজী ইয়াছিন মিয়া, নাসিক ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি, মহানগর মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী ইসরাত জাহান স্মৃতি, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি  মো. জুয়েল হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।