লাঙ্গলবন্দ স্নান উদযাপন কমিটির স্বপন দাসকে কুপিয়ে জখম

বন্দর(আজকের নারায়নগঞ্জ):  বন্দরে পাওনা টাকা চাওয়ার জের ধরে লাঙ্গলবন্দ স্নান উৎসব উদযাপন কমিটির সদস্য ব্যবসায়ী স্বপন চন্দ্র দাস(৪৫)কে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। রবিবার ভোর ৬টায় লাঙ্গলবন্দ নগর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।

এ ব্যাপারে আহত স্বপন চন্দ্র দাস বাদী হয়ে ৪জনসহ আরো ২/৩ জন অজ্ঞাতনামা আসামী করে বন্দর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়,মুছাপুর ইউনিয়নস্থ লাঙ্গলবন্দ নগর এলাকার মৃত দেবেন্দ্র চন্দ্র দাসের ছেলে লাঙ্গলবন্দ স্নান উৎসব উদযাপন কমিটির সদস্য ব্যবসায়ী স্বপন চন্দ্র দাসের সঙ্গে একই এলাকার আলেকচান মিয়ার ছেলে নাসিরের পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধ চলছিল।

এর ধারাবাহিকতায়,রবিবার ভোর ৬টায় আকস্মিকভাবে লাঙ্গলবন্দ নগর এলাকার মান্নান মাষ্টারের বাড়ীর ভাড়াটিয়া স্বপন চন্দ্র দাসের বসতঘরে প্রবেশ করে আলেকচান মিয়ার ছেলে নাসির,আলআমিন,সাজু ও জহিরসহ ৫/৬ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল পাওনা টাকা দাবী করে। এভাবে অপ্রস্তুতভাবে বসতঘরে প্রবেশ করায় উভয়ের মধ্যে বাকযুদ্ধ শুরু হয়।

একপর্যায়ে স্বপন চন্দ্র দাসকে পাওনাদার নাসির বাহিনী অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে। গালমন্দের এক পর্যায়ে নাসির তার হাতে থাকা লাঠি ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে স্বপন চন্দ্র দাসকে আহত করে। নাসিরের ছেলে আলআমিন তার হাতে থাকা বটি দিয়ে কুপিয়ে স্বপনের চোখ রক্তাক্ত জখম করে ও বাম পায়ের রগ কাটার চেষ্টা করে। এ সময় স্বপনের স্ত্রী এগিয়ে এলে তাকেও শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে।

হামলাকারীরা এ সময় আহত স্বপন চন্দ দাসের বসত ঘরেও ভাঙ্গচুর করে আলমারিতে থাকা নগদ অর্ধলক্ষ টাকা ও স্বপন চন্দ্র দাসের স্ত্রীর গলায় থাকা ১ভরি স্বর্নের চেইন লুটে নেয়। আহত স্বপন ও তার স্ত্রীর আর্ত চিৎকারে আশপাশের লোক এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

এ সময় আহত স্বপনকে স্থানীয়দের সহায়তায় নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।