মতলব উত্তরে নিষিদ্ধ সময়ে মাছ শিকারে বিরত থাকার আহবান

মো. দ্বীন ইসলাম, মতলব উত্তর (চাঁদপুর) : মা ইলিশ রক্ষার জন্য শনিবার রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে আগামী ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত ২২ দিন চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ষাটনল থেকে চর আলেকজান্ডারসহ উপকূলীয় সাত হাজার বর্গকিলোমিটার জলসীমায় ইলিশ ধরা বন্ধ থাকবে।

মা ইলিশের প্রজনন নিরাপদ করার জন্য বিগত কয়েক বছরের মতো এবারও আশ্বিনের পূর্ণিমা লক্ষ্য রেখে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মৎস্য অধিদপ্তর। এ সময় ইলিশ আহরণ, ক্রয়-বিক্রয়, পরিবহন ও মজুদ পুরোপুরি নিষিদ্ধ। নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করতে টাস্কফোর্স কমিটির, মৎস্য অধিদপ্তর, কোস্ট গার্ড, নৌ-পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষকারী বাহিনীর সহায়তায় ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে।

মতলব উত্তর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. শাখাওয়াত হোসেন বলেন, ইলিশ সম্পদ সংরক্ষণে ২২দিন পদ্মা মেঘনায় মাছ আহরণ বন্ধ রাখা হয়েছে। বিগত বছরগুলোতে যেসব এলাকায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ নিধনের অভিযোগ পাওয়া গেছে, সেসব এলাকায় এবার বাড়তি নজরদারি রাখা হবে। এ সময় তালিকাভুক্ত প্রত্যেক জেলে পাবেন ৪০ কেজি করে চাল। এ সময় জেলেদের মাছ শিকার থেকে বিরত থাকার আহবান জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ইলিশের প্রজনন মৌসুম হচ্ছে আশ্বিনের ভরা পূর্ণিমা। এ সময় ডিম ছাড়ার জন্য ৭০-৮০ ভাগ মা ইলিশ গভীর সাগর ছেড়ে মিঠা পানির নদীতে চলে আসে। চলতি বছর ২৪ অক্টোবর আশ্বিনের পূর্ণিমা। পূর্ণিমার আগে সাগর ছেড়ে নদীতে প্রবেশের সময় এবং পূর্ণিমার পরে নদী ছেড়ে সাগরে চলে যাওয়ার সময় জেলেদের জালে মা ইলিশ ধরা পড়ে। তাই মা ইলিশের আসা-যাওয়া নির্বিঘ্ন করতে পূর্ণিমার আগে ১৭ দিন এবং পরে ৪ দিন অর্থাৎ মোট ২২ দিন ইলিশ নিধনে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। তাই ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা কার্যকরে চাঁদপুর জেলা ও বরিশাল বিভাগকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে মৎস্য অধিদপ্তর।