লিটনের ১২১ আর পুরো দলের ২২২ !

ক্রীড়া ডেস্ক(আজকেরনারায়নগঞ্জ):  এশিয়া কাপের ফাইনালে সবাইকে অবাক করে লিটনের দাসের সঙ্গে ওপেন করতে নামেন মেহেদী হাসান মিরাজ। এমন সিদ্ধান্তেই বাজিমাত। এশিয়া কাপের ১৪তম আসরে প্রথমবারের মতো সফল হয় টাইগারদের ওপেনিং জুটি। দুই ডান-হাতি মিলে গড়েন ১২০ রানের জুটি।

২১তম ওভারে মিরাজ ফেরার আগে রান রেট অনুযায়ী মনে হচ্ছিল বড় সংগ্রহের দিকেই এগুচ্ছে লাল-সবুজরা।
ইমরুল কায়েস, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুনরা দ্রুত ফিরলেও রানের চাকা সচল রাখার চেষ্টা করেন লিটন।

৩৩তম ওভারে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ফিরে যাওয়ায় ৫ উইকেট হারিয়ে ব্যাকফুটে চলে যায় বাংলাদেশ দল।
খাদের কিনারে দাঁড়িয়ে থেকে সৌম্য সরকারকে নিয়ে আরও ৩৭ রান যোগ করেন লিটন। সব ঠিকই যাচ্ছিল।

৪১তম ওভারের শেষ বলে বিতর্কিত স্ট্যাম্পিংয়ের কবলে পড়েন লিটন। থার্ড আম্পায়ার রড টাকারের সিদ্ধান্ত সবাইকে অবাক করে দেয়। আইসিসির নিয়মানুযায়ী সাধারণত ‘বেনিফিট অব ডাউট’গুলো ব্যাটসম্যানদের পক্ষে যায়। প্রায় তিন মিনিট পর ভারতের অনুকূলে সিদ্ধান্ত দেন অস্ট্রেলিয়ান এই আম্পায়ার।

১১৭ বলে ১২১ রান করে মাঠ ছাড়েন লিটন। চমৎকার এই ইনিংসটি খেলার সময় ১২ চার ও দুটি ছয় হাঁকিয়েছেন ডান-হাতি এই ওপেনার।

এর পরই ছক্কা মেরে আউট হন মাশরাফি বিন মুর্তজা। পর পর দুটি রান আউটে ম্যাচ চলে যায় ফিল্ডারদের দখলে। নাজমুল হাসান অপুর হাস্যকর রান আউটের পর সৌম্যও ফিরে যান।

সব শেষ নেমে দুই বল খেলে শূন্য রানে জসপ্রিত বুমরাহর বলে বোল্ড হন রুবেল হোসেন। ৪৮.২ ওভারে স্কোর বোর্ডে তখন ২২২ রান।

ভারতের হয়ে তিনটি উইকেট তুলে নেন কুলদিপ জাদব। দুটি উইকেট পেয়েছেন কেদার যাদব। একটি করে উইকেট শিকার করেন যুজবেন্দ্র চাহাল ও বুমরাহ।