নাশ

মূলঃ গুইসেপ্পে উন্গারেত্তি (১৮৮৮-১৯৭০)
অনুবাদঃ মিঞা মোহাম্মদ আলী

হৃদয় জোনাকীদের অঢেল দিয়েছে
জ্বেলেছে ও নিভিয়েছে
সবুজ থেকে সবুজে
আমি বিশদে বলছি

দুই হাতে মাটি ছানি
ঝিঁঝিঁ পোকা তাড়াই
নিজেকে সংহত করি
অবদমিত হৃদয়ে

ভালবাসা পাই অথবা পাইনে
নিজেকে কলাই করি
ডেইজি ফুলের দলে
শিকড় গেড়েছি
পঁচে যাওয়া মাটিতে
বেড়ে উঠেছি
আফিম গাছের মতো
দুর্বল ডাঁটিতে
নিজেকে জড়িয়ে ফেলি
স্পিনালবা কাঁটাতে

আজ
ইসোঞ্জো নদীর মত
নীল যার শিলাজতু
আমি থিতু হয়ে বসি
সূর্যে ঢাকা
নুড়ি পাথরের ছাইয়ে
এরপর গিয়েছি
মেঘের উড়ানে

সম্পূূর্ণরূপে অবশেষে
অসংযত
একাকী সত্তা আতঙ্কে থাকে
সময় স্পন্দিত হয় না হৃদয়ের সাথে
স্থান কাল নির্বিশেষে
সুখী আমি

ঠোঁটে লেগে আছে
মর্মর পাথরের চুমু।