লাঙ্গলের ভাত নাই,এবার সবার দাবি নৌকা- ভিপি বাদল

বন্দর(আজকের নারায়নগঞ্জ):  জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মো. বাদল (ভিপি বাদল) বলেছেন,মিছির-সমাবেশে  ডাক দিবেন, আমরা ২০০, ৫০০ গাড়ি নিয়ে ঝাপিয়ে পড়বো আর ইলেকশন এলে মার্কা দেবেন লাঙ্গল? রাজত্ব আওয়ামীলীগের মাতব্বরি করে লাঙ্গল। নো, এটা চলবে না। লাঙ্গলের ভাত নাই। আওয়ামীলীগ না থাকলে ১০টা সিট পান কিনা সন্দেহ।

শনিবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বন্দরের চৌরাপাড়া এলাকার সরদার কমিউনিটি সেন্টারে মহানগর ২৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আয়োজিত এক উঠান বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলে,  আজকে নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনে আমরা দাবি করেছি আমরা নৌকা চাই। জাতীয় পার্টি স্থানান্তর করা হোক অন্য জায়গায়। মহাজোট অন্য জায়গায় দেন আমাদের আপত্তি নাই। ওই দিন নম পার্কে সেলিম ভাই বলেন দিপু আর ভিপি বাদল তার জন্য থাকবে। আমি সেলিম ভাইকে বলতে চাই, আপনি যদি গ্রীন সিগনাল পান সেটা তো ভিন্ন ব্যাপার। আকাশে চাঁদ উঠলে দেখা যাবে। শেখ হাসিনা যে নির্দেশ দেবেন আমরা সেটাই পালন করবো।

এ সময় ভিপি বাদল বলেন, সেই ছাত্র রাজনীতি থেকে শুরু করেছি। মানুষের ঘরে যাই, হাড়ির খবর নেই। আমি আপনাদের সুখ দুঃখের সঙ্গি হয়ে থাকতে চাই, বাদল ভাই হয়ে থাকতে চাই। নির্বাচন বড় কথা না। কথায় নয়, কাজে দেখতে চাই। পিঠে হাত দিয়ে কথা বলতে হবে, যখন যাবে তখন যেন পায়। প্রয়োজনে যখন যাবে ওই শামীম ওসমানের মতো যেন সই করে দেয়। থানা বলেন যেখানে বলেন এই কাজ টুকু করতে হবে। যোগ্যতা না থাকলে এমপি নির্বাচন করতে আইসেন না।
তিনি বলেন, সব জায়গায়ই এখন উঠান বৈঠক। আমি ইলেকশন করবো এর জন্য আপনাদের কাছে আসি নাই। আমি আসছি খোলামেলা কথা বলতে। এই সময়টা হওয়া উচিত নৌকার দাবি, ৫ আসনে নৌকার দাবি। ১৮ বছর যাবত ভিন্ন প্রার্থী ছিল। এবার সবার দাবি নৌকা। আর এই দাবির জন্যই আজকের এই মিটিং। নমিনেশন তো ওই যে উপরওয়ালার হাতে। যে নৌকা প্রার্থী হয়ে আসবেন আমি তাঁর জন্য কাজ করবো। এখানে আমরা এমন একজন নেতা চাই যে আপনাদের সুখ-দুঃখের সঙ্গি হবে। যে নেতা আপনাদের বাড়ি গিয়ে আর কিছু না পারুক অন্তত খোজ খবর নেয়।
২৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. শাহ্ আলমের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো. নূর হোসেন, নবীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি হাজী মো. হাবিবুর রহমান, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এমলাক, ধামগড় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল আলী ভূইয়া, শহর যুবলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. আলমগীর হোসেন, জেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের সভাপতি মো. জসিমউদ্দিন, মহানগর বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের সভাপতি মো. জুয়েল ভূইয়া, বন্দর থানা শাখার বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের সভাপতি মো. হবিবুর রহমান, আওয়ামীলীগ নেতা অলি আহমেদ, ইউসুফ মিয়া, শাহ্জাহান, আয়নাল হক, মো. শাহ্ শফিউদ্দিন, পরেশ চৌধুরী, শ্যামল কুমার দাস, মো. শাহ্জালাল, মো. আজম প্রমুখ।