আজ আফগানদের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে তরুন বাংলাদেশ

ক্রীড়া ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ):  ২০১৪ সালে এশিয়া কাপেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। ফতুল্লায় হওয়া ম্যাচটিতে ৩২ রানে হারতে হয়েছিল স্বাগতিকদের। দ্বিতীয় দেখায় অবশ্য বড় দাগে ম্যাচ জেতে টাইগাররা। ২০১৫ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপে আফগানদের বিপক্ষে ১০৫ রানে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছিল মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। পরের বছর তিন ম্যাচ সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফর করেছিল মোহাম্মদ নবী-রশিদ খানরা। এতে ২-১ এ সিরিজটি জিতে নেয় বাংলাদেশ দল। চলতি বছর তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে অংশ নিয়েছিল দুই দল। ভারতের দেরাদুনে অনুষ্ঠিত ওই সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়ে ফিরেছিল বাংলাদেশ।
আজ বৃহস্পতিবার ফের মাঠে নামছে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান। এশিয়া কাপে ‘বি’ গ্রুপ থেকে দুই দলই শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সুপার ফোর নিশ্চিত করেছে। মূল সূচি অনুযায়ী শেষ ম্যাচে যে জিতবে সেই দলটিরই হওয়ার কথা ছিল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। যদিও বিশেষ কারণে সূচিতে পরিবর্তন এনেছে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি)। নতুন সূচি অনুযায়ী বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান দল দুই ভেন্যু আবুধাবি ও দুবাই যাতায়াত করে ম্যাচগুলো খেলবে। অন্যদিকে ভারতীয়রা দুবাইতেই নিজেদের বাকি দুই ম্যাচ খেলবে। সূচির জন্য ‘বি’ গ্রুপ থেকে দ্বিতীয় স্থান নিয়ে বাংলাদেশকে খেলতে হবে পরের ম্যাচগুলো। সে হিসেবে আজকের ম্যাচে বিশেষ কোনো গুরুত্ব নেই!
সূচির জন্য পরিকল্পনা ওলট-পালট হলেও এক দিক দিয়ে বেশ লাভই হয়েছে বাংলাদেশের। আজকের ম্যাচ খেলেই আগামীকাল শুক্রবার ভারতের বিপক্ষে নামতে হবে স্টিভ রোডসের শিষ্যদের। আর তাই আফগানিস্তানের বিপক্ষে আজকের ম্যাচে দলের গুরুত্বপূর্ণ ও সিনিয়র সদস্যদের বিশ্রাম দিতে পারবে টাইগার টিম ম্যানেজমেন্ট। অন্যদিকে স্কোয়াডে থাকা তরুণ সদস্যরাও নিজেদের প্রমাণ করার সুযোগ পাবেন।
ওপেনার তামিম ইকবাল ইনজুরির কারণে দেশে ফিরে এসেছেন। তার বদলে মূল একাদশে জায়গা পাবার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে নাজমুল হাসান শান্তর। এছাড়াও আজ একাদশে মুমিনুল হক, আরিফুল হক, আবু হায়দার রনি, নাজমুল ইসলাম অপুদের দেখা যেতে পারে। এমটাই জানাচ্ছে ক্রিকেটের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো।
আফগানদের সঙ্গে ম্যাচটি আবুধাবিতে শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৫টায়। সরাসরি সম্প্রচার করবে বিটিভি, জিটিভি, মাছরাঙা স্টার, স্পোর্টস ওয়ান ও স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট ওয়ান।
আগামীকাল থেকে শুরু হওয়া সুপার ফোরে সব দলই একে ওপরের বিপক্ষে একবার করে খেলবে। রাউন্ড রবিন পদ্ধতিতে যে দুটি দল এগিয়ে থাকবে তারাই যাবে ফাইনালে।
বাংলাদেশ স্কোয়াড
মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন কুমার দাস, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, আরিফুল হক, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নাজমুল হোসেন শান্ত, মেহেদি হাসান মিরাজ, নাজমুল ইসলাম অপু, রুবেল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান ও আবু হায়দার রনি।