মতলব উত্তরে শ্রেষ্ঠ সভাপতি হাজী সামছুল হক চৌধুরী বাবুল

মতলব উত্তর (চাঁদপুর) থেকে মো. দ্বীন ইসলাম(আজকের নারায়নগঞ্জ): টানা তৃতীয় বারের মতো জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৮ প্রতিযোগীতায় মতলব উত্তর উপজেলার শ্রেষ্ঠ সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলার ৬৩নং নাছিরাকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোহনপুর ইউনিয়ন পরিষদের স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী সামছুল হক চৌধুরী বাবুল।

সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ (এসএমসি) ক্যাটাগরিতে উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ সভাপতি নির্বাচিত হন তিনি। রোববার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত দিনব্যাপী মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে এই প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়।
প্রতিযোগীতায় মোট ৯টি ক্যাটাগরিতে ৯জনকে নির্বাচিত করা হয়। হাজী সামছুল হক চৌধুরী বাবুল মতলব উত্তর উপজেলার ১৮০টি বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতিদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ সভাপতি নির্বাচিত হন। তিনি ৬৩নং নাছিরাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে বিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়নে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

মতলব উত্তর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া বলেন, স্কুলের অবকাঠামো ও শিক্ষার মানোন্নয়নে সবার চেয়ে বেশি কাজ করেছেন। প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে বিনামূল্যে স্কুল ড্রেস প্রদান করেছেন, নিজ অর্থায়নে মিড ডে মিল চালু করেছেন, কাব ড্রেস দিয়েছেন, ক্রীড়া অনুষ্ঠানগুলো নিয়মিত আয়োজন করছেন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আর্থিক ও পারিশ্রমিক সহযোগিতা করে থাকেন। উপজেলায় ১৮০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ৬৩নং নাছিরাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় একটি গুরুত্বপূর্ণ বিদ্যালয়। তিনি উপজেলার মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থায় বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য উপজেলার শ্রেষ্ঠ সভাপতি নির্বাচিত করা হয়েছেন।

এই প্রসঙ্গে হাজী সামছুল হক চৌধুরী বাবুল বলেন, আমি চাই আমার এলাকার প্রতিটি শিশু শিক্ষিত হয়ে গড়ে উঠুক। প্রতিটি ছেলে-মেয়ে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশ ও জাতিকে সেবা করুক। তাই আমি আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা দিয়ে নাছিরাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উন্নয়ন করতে চাই। আগামী দিনে যাতে আরো ভালোভাবে শিক্ষার জন্যে কাজ করতে পারি সেজন্যে সকলের কাছে আমি দোয়া চাই।

তিনি আরো বলেন, এই প্রাপ্তি বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ, শিক্ষক-শিক্ষিকা, ছাত্র-ছাত্রী ও এলাকাবাসী সবার। আমি সবার সহযোগিতা নিয়ে বিদ্যালয়ের উন্নয়নে কাজ করে যেতে চাই। এর আগে ২০১৫-২০১৬ সালেও সামছুল হক চৌধুরী বাবুল উপজেলা ও জেলা উভয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ সভাপতি নির্বাচিত হয়ে বিভাগীয় পর্যায়ে সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন।