সাতক্ষীরার সাবেক ডিসি ও ইউএনওসহ ৩ জনের কারাদণ্ড

আইন-আদালত(আজকের নারায়নগঞ্জ):  আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় সাতক্ষীরার সাবেক জেলা প্রশাসক আবুল কাসেম মো. মহিউদ্দিন ও আশাশুনির সাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুষমা সুলতানাসহ তিনজনকে তিন মাস করে দেওয়ানি কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।
আশাশুনি আদালতের সিনিয়র সহকারী জজ সাবরিনা চৌধুরী মঙ্গলবার এই রায় দেন। দণ্ডিতদের মধ্যে আরও রয়েছেন আশাশুনি সদর সহকারী ভূমি অফিসার কামাল হোসেন।
জেলা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা আবু সুফিয়ান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন মিস কেস ১৩/২০১৭ থেকে উদ্ভুত দেওয়ানি ৬০/২০১৭ এর এক নির্দেশে ২০১৭ সালের ২৬ জুলাই আদালত এক একর ৬৮ শতাংশ জমির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। বাদী ননী বালা হালদারের আবেদনের প্রেক্ষিতে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।
অথচ জেলা প্রশাসক ও ইউএনও পরস্পরের যোগসাজশে ওই জমিতে বিবাদী পক্ষকে যেতে সহায়তা করেন। এতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্যের ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার এ বিষয়ে একটি দীর্ঘ শুনানি শেষে সিনিয়র সহকারী জজ (আশাশুনি আদালত) তাদের তিনজনকে তিন মাসের কারাদণ্ড দেন। তাদেরকে আগামী এক মাসের মধ্যে সাতক্ষীরার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেয়া হয়। এই আদেশ লঙ্ঘন করলে তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হবে বলেও জানিয়েছেন আদালত।
গত ২৬ জুলাই ২০১৬ থেকে ২০১৮ সালের ৬ মার্চ পর্যন্ত সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসকের দায়িত্বে ছিলেন আবুল কাসেম মো. মহিউদ্দিন। বর্তমানে তিনি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব। অপরদিকে আশাশুনির সাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুষমা সুলতানা বর্তমানে নরসিংদীর এডিসি হিসাবে কর্মরত রয়েছেন।