ফেলে আসা সেই পথ

– অনুপা দেওয়ানজী

ছোট্ট বেলার সেই পায়ে চলা পথটিতে
আজো হেঁটে চলে এ মন-
পথের দু ধারে ছিলো বুনো ঘাস ফুল,
কেয়া ঝাড়ে ঢাকা ঘন ফলসার বন।

পথ থেকে দূরে, ধানরোপা ক্ষেতে-
বেড়ে ওঠা সবুজ ধানের চারা।
দুধজমা ধানে সোনা সোনা রঙ লাগা
কৃষকের হা্সি মুখ, শূন্য ক্ষেতের নাড়া।

কোথাও বা ঘন হিজলের গাছ থেকে
টুপ টাপ ঝরে পড়া লাল লাল ফুল
কোথাও লতিয়ে থাকা থোকা থোকা বেত ফল,
কোথাও ঝাঁকড়া গাছের বুনো টোপা কুল।

পায়ে চলা সেই পথে বাবার হাতটি ধরে
পুজো আসলেই বাড়ি ছুটে যাওয়া-
দেখতাম সারি সারি লেজ ঝোলা ফিঙ্গেদের
অবিরত দুলে দুলে দোল খেয়ে খাওয়া।

আজো পুজো আসে, পুজো যায়
ফেলে আসা পথ! আজো কি তেমনি আছে!
আজো সেই পথে বাবার হাতটি ধরে
আমার মতো কি কেউ যায় আর আসে?

পুজো এলে মনে হয় বাবা যেন আজো এসে
আলতো আমাকে ঠি-ক ছুঁয়ে দিয়ে যায়।
কথা বলে,সাথে সাথে চলে, দু-রে ব-হু দূরে
ফেলে আসা সেই পথের ঠিকানায়।