দূর্নীতি করে কেউ পার পাবেনা- আড়াইহাজারে দুদক কমিশনার আমিনুলের হুশিয়ারী

আড়াইহাজার (আজকের নারাযনগঞ্জ): দূর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার (তদন্ত) এ. এফ .এম আমিনুল ইসলাম বলেছেন, দেশে সৎ মানুষের বড়ই অভাব। তারপরও সৎ মানুষের জন্য দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। কমিশনের পক্ষ থেকে যারা অপরাধ করবে তাদের জন্য শাস্তিমূলক ব্যবস্থা ও প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা রয়েছে। আমরা যখন দায়িত্ব নিয়েছি তখন ১০০ টির মধ্যে ৩৭টি মামলায় শাস্তি দিয়েছি.৩২ টি মামলায় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। দূর্নীতি করে কেউ পার পাবেনা।

মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের গোপালদী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে ্দূর্নীতি বিরোধী শ্লোগান সম্বলিত খাতা, জ্যামিতি বক্স ও স্কেল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, আমরা অন্য ক্যাডার থেকে লোক নিয়ে ও নিজস্ব লোকবল দিয়ে দক্ষতার সাথে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা প্রতিটি জেলা, উপজেলা ইউনিয়নে সততার জন্য প্রচারণা, বিদ্যালয়গুলোতে সততা স্টোর করেছি।স্কুল কলেজ থেকেই যেন দূর্নীতির ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টি হয় তাই আমরা এ ধরনের কর্মসুচীগুলো করে থাকি। স্কুল কলেজে দূর্নীতি বন্ধ করতে হবে, শ্রেণীকক্ষের পাঠদান শ্রেণীকক্ষেই দিতে হবে। অন্য কোথাও দেয়া যাবেনা।

তিনি আরো বলেন,সরকার মাদক ও দূর্নীতি বন্ধে কাজ করছে। মাদক বড় দূর্নীতি। মাদক থেকে আমাদের দূরে থাকতে হবে। যারা গ্রামাঞ্চলে থাকে তাদের দূর্নীতি ছোট আর যারা ঢাকায় থাকে তাদের দূর্নীতি বড়, তবে দুটোই অপরাধ। কাউকেই ছাড় দেয়া হবেনা।

এতে স্থানীয় সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহজালাল মিয়া, দূর্নীতি দমন কমিশনের পরিচালক নাসিম আনোয়ার, মোঃ মনিরুজ্জামান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুরাইয়া খান, শিক্ষানুরাগী ডাঃ সায়মা আফরোজ ইভা, গোপালদী পৌর মেয়র আলহাজ্ব এম এ হালিম সিকদার, আড়াইহাজার পৌর মেয়র আলহাজ্ব সুন্দর আলী, গোপালদী বনিক সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব জাকির হোসেন মোল্লা ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাদেকুর রহমান কামাল প্রমুখ।