নিখোঁজ ছাত্রদল নেতা রনি আজ গ্রেফতার,অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার!

আইন-আদালত(আজকের নারায়নগঞ্জ):  নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনির  পরিবারের অভিযোগ ছিল ধানমন্ডি থেকে তুলে নিয়ে গেছে। এ নিয়ে রোববার নারায়নগঞ্জ প্রেসক্লাবে নিখোঁজ রনির স্বজনেরা সংবাদ সম্শেরন করে রনিকে আদালতে সোপর্দের দাবী জানায়। অথচ সোমবার সকালে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের দাবী সোমবার সকালে ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুর থেকে পিস্তল ও গুলিসহ রনিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এ অবস্থায় আলোচিত ছাত্রদর নেতা মশউর রহমান রনির নিখোজ নাটকের অবসান ঘটে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের জানান, সোমবার সকাল ৬টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রনিকে ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ওই সময়ে রনির কাছ থেকে একটি বিদেশী তৈরি পিস্তল ও ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার-ক সার্কেল মেহেদী ইমরান সিদ্দিকীও এর সত্যতা স্বীকার করে জানান,সোমবার ভোরের দিকে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়েছে। এ সময় বিদেশী পিস্তল ও ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনিকে ফিরে দেওয়ার আকুতি জানিয়েছে তার স্বজনেরা। তারা বলেন, অপরাধী হলে আদালতে সোপর্দ করুন না হয় আমাদের সন্তান আমাদেরকে ফিরিয়ে দিন।
লিখিত বক্তব্য পাঠ করে রনির ছোট ভাই মহিবুর রহমান রানা জানান, তাঁর ছোট ভাই মো. মশিউর রহমান রনি (৩০) গত ১৫ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টায় পারিবারিক কাজে ঢাকা যায়। আর রাত পর্যন্ত ফিরে আসেনি। তবে রাত সাড়ে ১০টায় অজ্ঞাত এক ব্যক্তি ঢাকা থেকে টেলিফোনে জানায় যে এমাত্র একটি কালো মাইক্রোবাসে করে কয়েকজন সাদা পোষাকধারী নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয়ে আমার ভাই মশিউর রহমান রনিকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়। এর পর থেকে নিখোঁজ রয়েছে রনি।