তোমরা কি মনে করো, আমার নির্বাচন করা উচিত? প্রশ্ন শামীম ওসমানের

 

ফতুল্লা(আজকের নারায়নগঞ্জ):নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ এ কে এম শামীম ওসমান বলেছেন, দেশের একমাত্র শক্তি হচ্ছে ছাত্র। ছাত্ররা কখনো মিথ্যা বলে না। কারণ ওদের কোন চাওয়া পাওয়া নেই। এই শক্তিটা হচ্ছে লড়াই করার শক্তি। বাংলাদেশে যতো আন্দোলন হয়েছে সবকিছুর নেতৃত্ব দিয়েছে ছাত্ররা। আমি তাই তোমাদের কাছে একটি অনুমতি চাই। সততার সাথে বলবা। আগামীতে নির্বাচন হবে। আমি জানি না আমি নির্বাচন করবো কিনা। আমি মনে করি তোমাদের কাছ থেকে তোমাদের অনুমতি নেয়া দরকার। এই যে নির্বাচনটা আসছে সেখানে কি তোমরা মনে করো, আমার নির্বাচন করা উচিত?

রবিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ফতুল্লার ইসদাইরের এ কে এম শামসুজ্জোহা স্টেডিয়ামে সরকারি তোলারাম কলেজের নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, তবে আমি নির্বাচন করলে জননেত্রী শেখ হাসিনার দল থেকে নেত্রীর মত নিয়ে নৌকা মার্কাই নির্বাচন করবো। আমি তোমাদের কাছে পার্মিশন চাই। আমি টাকা পয়সা দিয়ে রাজনীতি করি না। আমি এই ব্যাপারটাকে ঘৃনা করি। আমি গতবারও করি নাই। তার আগের বারও করি নাই। আমি কোন দল বুঝি না।
এ সময় শিক্ষার্থীরা হাত উচু করে সমর্থন জানালে শামীম ওসমান বলেন, তাহলে তোমার বাবা কিংবা চাচা নির্বাচনে দাড়ালে যেভাবে খাটতা সেভাবে কি আমার জন্য খাটবা? যদি যোগ্য মনে করো তাহলে খাটবা।

শামীম ওসমান উন্নয়ন প্রসঙ্গে এবং শিক্ষার্থীদের বাসের দাবী পূরন করা হবে আশ্বাস দিয়ে  বলেছেন, আমি গতবার এমপি থাকা অবস্থায় ২৬‘শ কোটি টাকার কাজ করেছি। এবার কাজ করেছি ৭ হাজার ৪‘শ কোটি টাকার কাজ করেছি। তবুও আমি সেটিসফাইড না।

আর এখানে দাবি উঠেছে তোলারাম কলেজে বাস চাই। এই দাবি বড় কোন দাবি না। এই বাসের সমস্যা সমাধান হবে। ।

ফতুল্লাতে রাস্তাঘাট, পুল-কালভার্ট কিছুই ছিল না। সিদ্ধিরগঞ্জের স্কুল কলেজগুলো ভেঙ্গে ভেঙ্গে পড়ছিল। সবগুলি আমরা কাজ করেছি, আরো হবে।

রবিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ইসদাইরের এ কে এম শামসুজ্জোহা স্টেডিয়ামে সরকারি তোলারাম কলেজের নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমানের সহধর্মিনী ও জেলা মহিলা সংস্থার সভাপতি সালমা ওসমান লিপি, সরকারি তোলারাম কলেজের অধ্যক্ষ বেলা রাণী সিংহ, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর শাহ্ মো. আমিনুল ইসলাম, মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ্ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, মহানগর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মো. জুয়েল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহমেদ দুলাল প্রধান, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানি, এহসানুল হক নিপু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান সুজন, বর্তমান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আজিজুর রহমান আজিজ, সাধারণ সম্পাদক রাফেল প্রধান প্রমুখ।