আমি ‘ইন ডাইরেক্টলি ও ডাইরেক্টলি’ দুইটাই বলে দিলাম- সেলিম ওসমান

ফতুল্লা(আজকের নারায়নগঞ্জ): নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলেছেন,  গত ৪ বছর আমি অনেক পরিশ্রম করেছি, জন্ম লগ্ন থেকে খোকা পরিশ্রম করেছে। আমি জাতীয় পার্টি না করলেও যে জলুম, লুট-পাট আমার জীবন শেষ করে দেওয়া হয়েছে। আমি বিএনপি সরকার আমলে, হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ আমলে এমনকি আওয়ামীলীগ আমলেও ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছি। আমাদের এতোগুলো মানুষের চাহিদার বাহিরে যদি অন্য কাউকে উড়ে এসে জুড়িয়ে বসিয়ে দেওয়া হয়। আমরা থাকব কিনা সন্দেহ থাকবে। আমি ইন ডাইরেক্টলি ও ডাইরেক্টলি দুইটাই বলে দিলাম।

রবিবার (১৬ আগষ্ট) দুপুরে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে ফতুল্লা ওসমানী স্টেডিয়াম সংলগ্ন নাসিম ওসমান মেমোরিয়াল (নম) পার্কে জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টি এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে মত বিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনাদের ইচ্ছা হলে তাদের সাথে যাবেন আমরা চলে যাব। পাওয়ার নেওয়া, ক্ষমতা নেওয়া আমাদের কাজ নয়। আমাদের এলাকার মানুষকে সহযোগীতা ও স্বাবলম্বী করাই আমার ও খোকার কাজ। তবুও আমাদের একটা আত্মসম্মান আছে, আমাদের সম্মান না দিয়ে উড়ে এসে জুড়ে বসাতে পারেন।

সেলিম ওসমান বলেন, আমরা সবার সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করেছি, হয়ত ব্যক্তিগত ভাবে করতে পারি নাই। সামনে সময় আছে,জাতীয় পার্টির কোন কর্মী যেন অসহায় জীবন যাপন না করেন সেটাই আমাদের পরবর্তী কার্যক্রম থাকবে। নারায়ণগঞ্জের ১০০০ বেকার যুবককে কর্মস্থান ও ৭৫০ নারীকে বেকারত্ব থেকে দুর করতে পারিএবং ৪৫০ মুক্তিযোদ্ধাকে যদি সহযোগিতা করতে পারি তাহলে আপনাদের জন্যও পারব। অসহায় হওয়ার কিছু নাই। আরেকবার সুযোগ চাই আপনাদের কাছে। সুযোগ আপনাদের কাছেই চাইতে হবে। উপরে চাইবো না। আপনারা আমার শক্তি। আপনারা ভবিষ্যত চলার পথ।

সেলিম ওসমান আরো বলেন, আমরা দুইজন সংসদ সদস্য অনেক আওয়ামীলীগ সদস্য অনেক বেশি সরকারি কার্যক্রম আমাদের এলাকায় করতে পেরেছি। আমরা মন্ত্রীত্ব লোভ করি নাই, ঝগড়া করি নাই। আমরা অনেক সময় অনেক কিছু ত্যাগ করেছি জাতীয় পার্টিকে ভালোবেসে। জাতীয় পার্টির নেতৃত্বদের কাছে আমাদের অনুরোধ থাকবে, আপনাদের মধ্যে যদি কোন বিভেদ, কোন ভুল বোঝাবুঝি হবে। আপনারা কান কথা শুনবেন না। যেসব নেতাকর্মী দীর্ঘদিন যাবৎ জাতীয়পার্টি করছেন তাদের অপমান করবেন না।

প্রস্তাবনায় সকলেই আশা করি একমত, আমরা কমিটি করব, পূর্বের যে কমিটি আছে, তবে কেউ যদি জাতীয় পার্টিকে ভাঙার চেষ্টা করে, পার্টিকে দূর্বল করার চেষ্টা করে, তাদের কে পার্টির সদস্য রাখলেও কমিটির সদস্য রাখব না। আমরা জাতীয় পার্টির নেতৃত্বের উপর ভরসা রেখে আমাদের কমিটি তৈরী করব। সেই কমিটিতে নারায়ণগঞ্জে ৫ জন হবে নাকি ২ জন হবে তার সিদ্বান্ত হবে।

তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জ- ৩ আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা আজকেই সকলের সম্মতি নিয়ে কাজ শুরু করবেন। এছাড়া যারা কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে আসছেন। তারা সাক্ষর দিবেন। আপনাদের আমাদের বক্তব্যদের ভিডিও করা হয়েছে। যারা কমিটি বানাবেন, নমিনেশন দিবেন তাদের কাছে এটা পৌছায় দিবো।

জাতীয় পার্টির সভাপতি আলহাজ্ব আবুল জাহের সভাপতিত্বে এসময় সভায় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান আলম শিকদার লোটন, সিনিয়র যুগন্ম মহাসচিব ও নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা, সাংগঠনিক সম্পাদক এ. কে. এম আশরাফুজ্জামান, যুগ্ম-সাংগঠনিক সম্পাদক ছালাহ উদ্দিন খোকা।