খেলাধূলায় রপ্ত থাকলে কেউ অপরাধে জড়ায় না – ত্রাণ মন্ত্রী মায়া

মতলব উত্তর (চাঁদপুর)থেকে মো. দ্বীন ইসলাম(আজকের নারায়নগঞ্জ)  :  খেলাধূলায় রপ্ত থাকলে কেউ অপরাধে জড়ায় না। মাদক গ্রাস করতে পারেনা। জননেত্রী শেখ হাসিনা যুব সমাজ রক্ষা করতেই বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টূর্ণামেন্টের উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এ উদ্যোগকে স্বাগত জানাই।
শুক্রবার বিকাল ৩টা মায়া বীরবিক্রম স্টেডিয়ামে (প্রস্তাবিত) ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট (অনুর্ধ্ব-১৭) -২০১৮ এর ফাইনাল খেলার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণকালে দুুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম এমপি এ কথা বলেন।
ফাইনাল ম্যাচে ফরাজীকান্দি ইউনিয়ন ও ছেঙ্গারচর পৌরসভার মধ্যে খেলা অনুুষ্ঠিত হয়। ম্যাচে ছেঙ্গারচর পৌরসভার জয় লাভ করে।
ত্রাণমন্ত্রী মায়া বলেন, লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা মানুষের মনকে সচেতন করে তুুলে। খেলাধুলা সমাজের অপরাধমূলক কর্মকান্ড থেকে যুবসমাজকে দূরে রাখে। সুস্থভাবে জীবন-যাপন করতে খেলাধুলার বিকল্প নেই। খেলাধুলার মাধ্যমে মন তাকে উৎফুলøø। যার ফলে বৃদ্ধি পায় শিক্ষার হার। এ ধরনের খেলাধূলার আমাদের ভবিষৎ প্রজন্মকে সুস্থ, সবল ও সৎ পথে রাখা যায়।
মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার যুবসমাজকে মাদক থেকে মুক্ত রাখতে খেলাধুলার প্রতি অর্থ খরচ করে ব্যাপক আগ্রহ দেখাচ্ছেন। তাই যুবসমাজ এ ধরনের খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করে পর্যায়ক্রমে জাতীয় ভাবে পরিচিতি হওয়ার সুযোগ রয়েছে। শুধু খেলাধুলা নয় বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সম্পর্কেও জানতে হবে। বিকৃত ইতিহাসের পরিবর্তে সঠিক ইতিহাস আমাদের নতুন প্রজন্মকে জানাতে হবে।
ত্রাণমন্ত্রী আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা এ টুর্ণামেন্টের আয়োজন করায় তাঁকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি। ভবিষ্যতে আরও বেশি করে এই সব খেলাধুলার আয়োজন করে তবেই বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গানে গুরুত্বপূর্ন  ভূমিকা রাখবেন বলে আমি মনে করি। খেলাধুলার মাধ্যমে মন উৎফুল্ল থাকে। তাই দেশের খেলাধুলাকে বহুদুর এগিয়ে নিতে সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এসব খেলাধুলায় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও টূর্ণামেন্ট কমিটির সভাপতি শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক একেএম আজাদের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি বক্তব্য রাখেন-উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ, ছেংগারচর পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব রফিকুল আলম জজ।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- সহকারি কমিশনার (ভূমি) শুভাশিষ ঘোষ, মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ কবির হোসেন, মতলব দক্ষিণ থানা অফিসার ইনচার্জ ইকবাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম হাওলাদার, মোহনপুর ইউনিয়ন পরিষদের স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সামছুুল হক চৌধুরী বাবুল, চাঁদপুর জেলা মুক্তিযোদ্বা সংসদের সাবেক কমান্ডার শহীদুল আলম রব, বৃহত্তর মতলব থানা মুক্তিযোদ্বা সংসদের সাবেক মুক্তিযোদ্বা কমান্ডার তমিজ উদ্দিন আহমদ, আ’লীগ নেতা কাজী মিজান, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী শরীফ হোসেন ছেংগারচর পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান ঢালী, ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দানেশ, শরীফ উল্লাহ সরকার, আজমল হোসেন চৌধুরী, লোকমান আহমেদ মুন্সি, মনজুর মোর্শেদ স্বপন, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মিনহাজ উদ্দিন খান, সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক তামজিদ সরকার রিয়াদ, ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রহমত উল্লাহ সরকার লিখন, ছেংগারচর পৌরসভার কাউন্সিলর আবদুল মান্নান বেপারী, বোরহান উদ্দিন প্রধান, শাহাদাত হোসেন ঢালী খোকন, পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামীম প্রধান’সহ উপজেলা প্রশাসনিক কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক, সাংবাদিক, সূধীজন।

রেফারি দায়িত্ব পালন করেন হাজীগঞ্জ থেকে আগত জাহাঙ্গীর হোসেন, সহকারী রেফারী ছিলেন মনির হোসেন ও ইউসুফ আলী।