প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে পলাশের আনন্দ মিছিল,মিষ্টিমুখ

ফতুল্লা(আজকের নারায়নগঞ্জ): গার্মেন্টস শ্রমিকদের ন্যুনতম মজুরী ৮ হাজার টাকা নির্ধারন করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে আনন্দ মিছিল করেছে ফতুল্লা অঞ্চলের গার্মেন্ট শ্রমিকেরা। মজুরী ঘোষনার পর ১৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আলীগঞ্জ এলাকায় আনন্দ মিছিলে নেতৃত্ব দেন জাতীয় শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যান বিষয়ক সম্পাদক  এবং নারায়নগঞ্জ-৪ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশি কাউসার আহমেদ পলাশ।

মিছিলটি আলীগঞ্জ থেকে শুরু হয়ে পাগলা প্রদক্ষিন শেষে আবারো আলীগঞ্জে এসে শেষ হয়। পরে আলীগঞ্জস্থ লেবারহলে সমবেতবিপুল সংখ্যক গার্মেন্ট শ্রমিকদের মিষ্টিমুখ করানো হয়। এ সময় শ্রমিকেরা আনন্দে উদ্বেলিত হয়ে শ্রমিক নেতা কাউসার আহমেদ পলাশের মুখে মিষ্টি তুলে দেয়।

এ সময় সংক্ষিপ্ত ভাষনে শ্রমিকনেতা পলাশ বলেন,দেশের বিদেশী মুদ্রা অর্জনে ভূমিকা রাখা গরীব গার্মেন্ট শ্রমিকদের মজুরী বৃদ্ধি করে তিনি আবারো প্রমান করলেন জননেত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিকবান্ধব নেত্রী। উনার সরকার মেহনতি  শ্রমিক-জনতার কথা চিন্তা করে সরকার পরিচালনা করেন। দেশের সর্ব স্তরের শ্রমিক-জনতার পক্ষ থেকে নেত্রীকে ফুলৈল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই।

তিনি শ্রমিকদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন,জননেত্রী শেখ হাসিনা যেম শ্রমিক-জনতার মেহনতি মানুষের কথা চিন্তা করেন,তেমনি আগামীতে যাতে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যাকে আবারো প্রধানমন্ত্রী বানানো সেই লক্ষ্য নিয়েই আমাদের মাঠে কাজ করে যেতে হবে। নইলে দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা থাকবে না।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু গার্মেন্টস শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ঘোষণার এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন: মালিক-শ্রমিক পক্ষের সঙ্গে কথা বলে পোশাক খাতে সর্বনিম্ন ৮ হাজার টাকা মজুরি চূড়ান্তের সিদ্ধান্ত দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই মজুরি ডিসেম্বর থেকে কার্যকর হবে। তবে ডিসেম্বরের বাড়তি এই মজুরি শ্রমিকরা জানুয়ারিতে পাবেন। বর্তমানে ন্যূনতম মজুরি ৫ হাজার ৩০০ টাকা।

চলতি বছরের ১৪ জানুয়ারি পোশাক শ্রমিকদের জন্য মজুরি বোর্ড গঠন করে সরকার। স্থায়ী ৪ সদস্যের সঙ্গে পোশাক কারখানার মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ’র সভাপতি ও শ্রমিকদের একজন প্রতিনিধি নিয়ে গঠিত এই মজুরি বোর্ড সার্বিক বিষয় বিবেচনা করে মজুরি নির্ধারণ করেছে।

এর আগে ২০১৩ সালের ৭ নভেম্বর পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৫ হাজার ৩০০ টাকা নির্ধারণ করে গেজেট প্রকাশ করা হয়। এই মজুরি কার্যকর হয় ওই বছরের ডিসেম্বর মাস থেকে। ৫ বছর পর এই মজুরি পুনঃনির্ধারণ হলো।