উদীয়মান আফগানদের দাপটে অসহায় টাইগার !

ক্রীড়া ডেস্ক,আজকের নারায়নগঞ্জঃ  প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে শুরু হলেও সিরিজের প্রথম ম্যাচেও উদীয়মান আফগানদের দাপটে অসহায় সাকিবদের টাইগার বাহিনী।  তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশকে ৪৫ রানে হারিয়েছে আফগানিস্তান।

লক্ষ্য ১৬৮ রান। আফগানিস্তানের বিপক্ষে এই লক্ষ্যটা খুব একটা বড় বলা যাবে না। কিন্তু এই রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই দুই নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। ওপেনার তামিম ইকবাল ও অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের উইকেট হারিয়ে শুরুতেই যে চাপে পড়ে যায় বাংলাদেশ, শেষ পর্যন্ত তা আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি।

রশীদ খান-মোহাম্মদ নবীদের দাপুটে বোলিংয়ে আফগানদের দেয়া ১৬৮ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ১৯ ওভারে ১২২ রানে গুটিয়ে যায় সাকিব আল হাসানের দল।রোববার ভারতের দেরাদুনের রাজিব গান্ধী স্টেডিয়ামে টস জিতে আফগানদের ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানানোর পর তামিম ইকবাল-লিটন দাসদের সামনে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয় যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি।

ওপেনিংয়ে নেমে প্রথম বলেই আফগানদের তরুণ তুর্কি মুজিব উর রহমানের বলে এলবিডব্লিউ ফাঁদে পড়েন তামিম। খারাপ শট খেলতে গিয়ে নবীর বলে নিজের উইকেটটি উপহার দিয়ে আসেন ১৫ বলে ১৫ রান করা সাকিব। ওপেনার লিটনকে নিয়ে কিছুটা প্রতিরোধ করেন মুশফিকুর রহিম। দুজনে মিলে ৪৩ রানের জুটি গড়লেও নবীর দ্বিতীয় শিকার হন ২০ বলে ৩০ রান করা লিটন। একাদশতম ওভারের প্রথম দুই বলে ফের নিজের শ্রেষ্ঠত্বের পরিচয় দিলেন রশীদ। প্রথমে ১৭ বলে ২০ রান করা মুশফিক আর পরের বলে সাব্বির রহমানকে ফিরিয়ে ম্যাচ নিজেদের করে নেন বিশ্বের সেরা এই স্পিনার।

মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও মোসাদ্দেক হোসেনের ২৯ রানের জুটি কিছুটা হলেও স্বপ্ন দেখান। ১৭তম ওভারে ২৩ বলে ১৪ রান করা মোসাদ্দেককে ফিরিয়ে দিয়ে নিজের তৃতীয় উইকেটটি তুলে নেন রশীদ। শেষ দিকে আফগান পেসার সাপুর জাদরান তিনটি উইকেট তুলে নেন ( রিয়াদ ২৫ বলে ২৯, রাজু ৩ বলে ৫, রুবেল ১ বলে ০)।

আবু জায়েদ ৪ বলে ১ রান করে করিম জান্নাতের বলে রশীদের তালু বন্দি হলে ম্যাচ জিতে নেয় আজগর স্টানিকজাইর দল। অপর প্রান্তে ৪ বলে  ৪ রান করে অপরাজিত ছিলেন নাজমুল ইসলাম অপু।

বাংলাদেশ দল তামিম ইকবাল, লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আবুল হাসান রাজু, রুবেল হোসেন, নাজমুল ইসলাম অপু ও আবু জায়েদ রাহী।

আফগানিস্তান দল মোহাম্মদ শাহজাদ, আসগর স্টানিকজাই (অধিনায়ক), উসমান গনি, মোহাম্মদ নবী, নজিবুল্লাহ জাদরান, শফিকউল্লাহ, রশিদ খান, মুজিব উর রহমান, সামিউল্লাহ সেনওয়ারি, করিম জানাত ও দৌলত জাদরান।