জনগনের সহযোগিতা ছাড়া মাদক নির্মূল কখনো সম্ভব না –ইন্সপেক্টর হারুনুর রশিদ

 

বন্দর(আজকের নারায়নগঞ্জ): বন্দর থানা পুলিশ পরিদর্শক মোঃ হারুনুর রশিদ বলেছেন, মাদক একটি জাতির জন্য অভিশাপ। মাদক নির্মূলের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে জনসচেতনতা তৈরী করা। জনগনের সহযোগিতা ছাড়া মাদক নির্মুল করা কখনো সম্ভব না। কারন সমাজের বিপথগামীদের আমাদের চাইতে আপনারাই ভালো চিনেন,জানেন।

নবীগঞ্জ কদমতলী এলাকায় সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত রুবেলের বাড়ী প্রাঙ্গণে মঙ্গলবার বিকেলে  এলাকাবাসী আয়োজিত অপরাধ বিরোধী সভায় প্রধাণ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন,মাদক নির্মূলে পুলিশকে সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করতে হবে। মনে রাখবেন সমাজের প্রতিটা মাদক ব্যবসায়ীর দায়ভার তার পরিবারের উপর। কেননা,অভিভাবকরা যদি তাদের সন্তানদের খেয়াল রাখতেন তাহলে তারা বিপথে পরিচালিত হত না। কিন্তু প্রশাসনকে কেউ সাহায্য করে না। পুলিশ কোন মাদক ব্যবসায়ীকে ধরলে কেউ স্বাক্ষী হতে চায় না। প্রশাসনের উপর আস্থা রাখেন না। সমাজে মাদক ব্যবসায়ী কতজন হয়? ১০জন? ৫০ জন? কিংবা ১০০জন? আর আমরা জনগন কত জন? অতএব মনে রাখবেন একতাই বল। আমরা নিজেরা সচেতন হলেই সমাজকে সমৃদ্ধ করতে পারব।

তিনি আরো বলেন,প্রধাণমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মাইলফলক উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথম এতো উন্নয়ন দেখছে দেশবাসী। এখন আমরা নিজেদের রাস্তাঘাট নিজেরাই চিনতে পারি না। অতএব এ উন্নয়নের ধারাবাহিকতা আপনাদেরই অব্যাহত রাখতে হবে।

কদমতলী পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি ওসমান গনির সভাপতিত্বে ও বন্দর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক আনোয়ার হুসাইনের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন বন্দর থানা এসআই হামিদুল ইসলাম,এএসআই জাকিউল ইসলাম,সাধারন সম্পাদক কামাল উদ্দিন,মাওলানা বদরুল আলম,নবীগঞ্জ এলাকার সমাজ সেবক হাজী মন্টু মিয়া,সিরাজুল ইসলাম,আলী আকবর মিয়া,মুসলিম মুন্সি, ইয়াছিন মিস্ত্রি,মোঃ মহিউদ্দিন,হোসনে আরাসহ স্থানীয় এলাকাবাসী।