এই ছবি নিয়ে ব্লাকমেইলিং এর কিছুই নেই- এমএ রশীদ

আমার বিশ্বাস কর্মীরা আমাকে ভুল বুঝবেনা

বন্দর(আজকের নারায়নগঞ্জ): এই ছবি নিয়ে ব্লাকমেইলিং এর কিছুই নেই’ মন্তব্য করে বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ রশীদ বলেছেন, সেদিন আমি নির্বাচন অফিসে ছিলাম আমার আইডি কার্ডের ব্যাপারে। এসময় দেলোয়ার আমাকে অনুরোধ করেছে তাই আমি কাগজটি ধরেছি।

তিনি আরো বলেন,আওয়ামীলীগের বাইরে সমর্থনের সুযোগ নেই। ৭০ বছরে আমার কোন স্পট নেই। আমার বিশ্বাস কর্মীরা আমাকে ভুল বুঝবেনা।

সোমবার(১১ অক্টোবর) বন্দর উপজেলা পরিষদে তার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ব্যখ্যা দেন।

এ সময় সেখানে বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কাজিমউদ্দিন প্রধানসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য গতকাল ১০ অক্টোবর রোববার একই দিনে কলাহাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী দেলোয়ার প্রধান ও আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী কাজিমউদ্দিন প্রধান নারায়নগঞ্জ নির্বাচনী অফিস থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।

তবে উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি কাজিমউদ্দিনের সাথে উপস্থিত না থাকলেও দেলোয়ার প্রধানের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের সময় সাথে ছবি তুলেন। তা ফেসবুকে পোষ্ট হলে তা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয় এবং পত্রপত্রিকায় নেতিবাচক সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর প্রেক্ষিতে এমএ রশীদ আজ সংবাদ সন্মেলনে তার অবস্থা তুলে ধরেন।