রূপগঞ্জে বিএনপির অর্ধশতাধিক নেতার বিরুদ্ধে আবারো নাশকতার মামলা

আইন-আদালত(আজকের নারায়নগঞ্জ) : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের নামে আরো একটি নাশকতার মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ বাদি হয়ে বিএনপির কেন্দ্রিয় কমিটির নির্বাহী সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান ভুঁইয়া দিপু, তৈমুর আলম খন্দকার, কাজী মনিরকে প্রধান আসামি করে ৩৩জন নামীয়সহ ৫৫জনকে আসামি করা হয়। এ নিয়ে গত এক সপ্তাহে মোস্তাফিজুর রহমান ভুঁইয়া দিপুর নামে পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের যুগ্ন সম্পাদক সালাহউদ্দিন দেওয়ান জানান, বিএনপিকে নির্বাচনে না আসার জন্যই সরকারের নির্দেশে পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে একের পর এক মামলা দিচ্ছে। সন্ধ্যা হলেই পুলিশ নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গ্রেফতার অভিযান চালায়। দলের অনেক নেতাকর্মীরাই এখন এলাকা ছাড়া রয়েছে। আতঙ্কে রয়েছে বসতবাড়িতে থাকা নারী ও শিশুরা। বিএনপি ও মোস্তাফিজুর রহমান ভুঁইয়া দিপুর জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে একের পর এক মিথ্যা মামলা দেয়া হচ্ছে। দিপু ভুঁইয়াপন্থি দলের নেতাকর্মীদেরও ওই মামলায় আসামি করা হচ্ছে। এসব মিথ্যা ও সাজানো মামলা দায়ের বন্ধ করে অবিলম্বে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান এই নেতা।

নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল মামুন জানান, সরকার ও পুলিশ বিএনপি দমনে নেমেছেন। মামলা, হামলা, গ্রেফতার করে বিএনপিকে দমানো যাবে না। রূপগঞ্জ নয়, সারা দেশেই ঘরে ঘরে বিএনপির নেতাকর্মী রয়েছে। জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক খাইরুল ইসলাম সজিবসহ গ্রেফতারকৃত সকল নেতাকর্মীর মুক্তি ও সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার দাবি করেন ইসমাইল মামুন।
বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান ভুঁইয়া দিপু বলেন, মামলা ও বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে পুলিশ ও সরকার পার পাবে না। অবৈধ সরকারের পতন হবেই।