আড়াইহাজারে সমিতির সভাপতি-সম্পাদকসহ ৬ দলিল লিখক বহিস্কার

আড়াইহাজার(আজকের নারায়নগঞ্জ): দূর্নীতির অভিযোগে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা দলিল লিখক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৬ জনকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বহিষ্কৃতরা হলেন, উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি আমান উল্লাহ আমান, সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমিন, দলিল লেখক মো: সাজ্জাদ পারভেজ, মোঃ জাকারিয়া জাকির, মো: কাজল ঢালী ও আশরাফুল কবির মানিক।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে আড়াইহাজার উপজেলা সাব রেজিস্ট্রার মো: কাউছার খান তাদের হাতে চিঠি তুলে দেন।

বহিষ্কারের চিঠি হাতে পেয়ে তাৎক্ষনিকভাবে সাব রেজিস্ট্রারকে প্রত্যাহারের দাবীতে মিছিল বের করে দলিল লিখকরা।

জেলা রেজিস্ট্রার অফিস সুত্রে জানা গেছে, ২০১৯ সালে তৎকালীন সাব রেজিস্ট্রার সফিউল বারী কর্মরত থাকা কালিন সময়ে একটি হেবা বেল এওয়াজ দলিল রেজিস্ট্রি হয়। এতে ৬ লাখ টাকা সরকার রাজস্ব হারায়। এই ঘটনায় তখন বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। বিষয়টি দূর্নীতি দমন কমিশনের নজরে আসে। তখন দুর্নীতি দমন কমিশন আইজিআরকে বিষয়টি তদন্ত করার নির্দেশ দেন। আইজিআর একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। কমিটি ঘটনার সত্যতা পেয়ে ২৬ সেপেটম্বর নিবন্ধন অধিদপ্তর ঢাকা বিভাগ এর রেজিস্ট্র অফিস সমুহের পরিদর্শক শেখ মো: আনোয়ারুল হক স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে তাদের সাময়িক বহিষ্কার করেন এবং চিঠি প্রাপ্তর ১৫ দিনের মধ্যে জবাব জেলা রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ে জমা দিতে বলা হয়েছে।

আড়াইহাজারের সাব রেজ্রিস্ট্রার মো: কাউছার খান জানান, আমি কর্তৃপক্ষের আদেশ পালন করে অভিযুক্তদের হাতে চিঠি পৌছে দেই। এতে আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই। এই ঘটনা আমি যোগদানের অনেক আগের।

আড়াইহাজার উপজেলা দলিল লিখক সমিতির সভাপতি আমান উল্লাহ আমান তাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমরা এর বিরুদ্ধে আপীল করবো। আমানউল্লাহ আরো জানান,এ সাবরেজিষ্ট্রার কোন দলিল করতে গেলেই মোটা অংকের ঘুষ দাবী করেন। তা আমরা দিতে অস্বীকার করায় ষড়যন্ত্র করে আমাদের ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন।