বিআইডব্লিউটিসি ওয়ার্কার্স ইউনিয়নঃ মোস্তাফিজ-চুন্নুর কমিটি গ্রহন করেনি শ্রম অধিদপ্তর

স্টাফ রিপোর্টারঃ আদালতের আদেশ সুস্পষ্ট লংঘন করায় মির্জা মোস্তাফিজুর রহমান ও খন্দকার জাকির হোসেন চুন্নুর দাখিলকৃত বিআইডব্লিউটিসি ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন(রেজিঃ নং বি-১৭০০) নামের সংগঠনের কমিটি গ্রহন করেনি শ্রম অধিদপ্তর। এর আগে শ্রম আদালত তাদের এ সংগঠনের ব্যানারে যেকোন ধরনের কার্যক্রম থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ প্রদান করেছেন ।

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আধীনে শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচাল((অতিরিক্ত সচিব) গৌতম কুমার স্বাক্ষরিত ১৬ সেপ্টেম্বর-২০২১ তারিখের চিঠিতে এক আদেশ বলে বলা হয়েছে, গত ৪-০৯-২০২১ তারিখে মীর্জা মোস্তাফিজুর রহমান ও খন্দকার জাকির হোসেন চুন্নু স্বাক্ষরিত সংগঠনের সাধারন সভা ও নির্বাচনী ফলাফলের যে চিঠি শ্রম অধিদপ্তর বরাবরে পাঠানো হয়েছে।

তবে মাননীয় ১ম শ্রম আদালত ঢাকার বিএলএ(অভিযোগ) মামলা নং-১৩৯৬/২০১৯ তারিখের আদেশে আপনাদেরকে বিআইডব্লিউটিসি ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন (রেজিঃ নং-বি-১৭০০) এর কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার জন্যে বলা হয়েছে। ফলে মাননীয় আদালতের প্রদত্ত আদেশ অমান্য করে গত ৪-০৯-২০২১ তারিখে বিশেষ সাধারন সভা অনুষ্ঠান করায় আদালতের আদেশের সুস্পষ্ট লংঘন হয়েছে।

এ কারনে আদালতের আদেশ লংঘন করে উক্ত তারিখের অনুষ্ঠিত সভায় ইউনিয়নের গঠনতন্ত্রেও অনুচ্ছেদ-২৭ এর পরিপন্থীভাবে কার্যনির্বাহি কমিটি গঠন আইন ও বিধি বহির্ভূত হওয়ায় তা গ্রহনের সুযোগ নেই বলেও জানানো গেল।

উল্লেখ্য,এর আগে উক্ত চক্রটি ১৯ করিমী মার্কেট ঠিকানা ব্যবহার করে অবৈধভাবে সংগঠনের কার্যক্রম চালানোর অপচেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে এখন নতূনভাবে বরফকল ঘাট,নগরখানপুর এলাকার ঠিকানা ব্যবহার করে আবারো ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। এ ব্যাপারে উক্ত চক্রের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিসির সাধারন শ্রমিক-কর্মচারীরা।

আরো জানা গেছে,উক্ত চক্রের হোতা খন্দকার জাকির হোসেন চুন্নুর বিরুদ্ধে হত্যা মামলাসহ বিভিন্ন অভিযোগ বিদ্যমান রয়েছে। সম্প্রতি সে হত্যা মামলায় কারাভোগ করে জামিনে বেরিয়ে এসে আবারো আপকর্ম শুরু হয়েছে।