জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিল সিদ্ধান্ত হঠকারী ও প্রতিহিংসা পরায়ন : রুহুল আমিন শিকদার

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শহীদ জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব সরকারের বাতিলের সিদ্ধান্তের তীব্র ও প্রতিবাদ জানিয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য মো. রুহুল আমিন শিকদার বলেছেন, রনঙ্গের সাহসী বীর মুক্তিযোদ্ধা,স্বাধীন বাংলাদেশের সফল রাষ্ট্রনায়ক সেক্টর কমান্ডার প্রয়াত রাষ্ট্রপতি শহীদ জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষকের বীর উত্তম খেতাব বাতিল সিদ্ধান্ত হঠকারী ও প্রতিহিংসা পরায়ন। অবিলম্বে এই সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে। সরকারের বিদায় বেলায় আগুন নিয়ে খেলা শুরু করেছে। সেই আগুনে পুড়ে এই অবৈধ সরকারের পতন ঘটবে।

বুধবার ( ১০ ফেব্রুয়ারি ) এক বিবৃতিতে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি সাবেক সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রুহুল আমিন শিকদার বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিকে সামনে রেখে জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষকের বীর উত্তম খেতাব বাতিল সিদ্ধান্ত হঠকারী ও প্রতিহিংসা পরায়ন। অবিলম্বে এই সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে।

কারন শহীদ জিয়াউর রহমানের নামের সাথে ১৬ কোটি মানুষের আবেগ ভালবাসা জড়িয়ে আছে। এদেশের মানুষের হৃদয়ে শহীদ জিয়াউর রহমান ঘুমিয়ে আছে । তারা মনে করে জিয়াউর রহমানকে অপমান করা মনে মহান স্বাধীনতা ও বাংলাদেশকে অস্বীকার করা। এই তাবেদার সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে জিয়া আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর,জিয়া শিশু পার্ক থেকে শুরু করে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে জিয়া নাম মুছে ফেলছে। সবশেষে তারা সবশেষ তারা মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর উত্তম খেতাব কেরে নেওয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি ।