প্রাচ্যের অসুখ

 আমিনুল ইসলাম

প্রাচ্যের প্রত্ন শরীরে আজ
এক কঠিন রোগের
আনাগোনা;
সে-রোগের সংক্রমণে
দিনদিন জঙ্গল হয়ে উঠছে
সহস্র সভ্যতার সূতিকাগার–
পূবের দুনিয়া !
অথচ প্রথমদিনের সূর্য
একদিন উঠেছিল এখানেই
ছড়িয়ে দিতে তার
প্রথম প্রভাতের আলো
আর টর্চ হাতে সভ্যতা রেখেছিল
প্রথম পা।
আর আজ মহামনিষীরা জন্মরুদ্ধ;
দ্যাখো—
ভেসে যায় প্রেম !
ভেসে যায় অহিংসা !
ভেসে যায় শান্তি ও ক্ষমা !
বানে ভেসে যাওয়া শস্যের উপমা
এর চেয়ে ভালো আর পাবে কোথায় ?

আর বনের আকাশে ওঠা
চাঁদের পিঠে চড়ে দ্যাখো-
দুর্বলদের ভেড়া জ্ঞানে
নিজেদের নেকড়ে-ভূমি
স্থাপনে তৎপর
সবলের দল !
কোনো মানবীয় ঘ্রাণ নয়,
অলৌকিক খোশবুও নয়,
তাদের গা থেকে
বের হয়ে আসে
জিঘাংসা ব্রান্ডের বিকট গন্ধ
যা হারামেন মদিনা কিংবা
টমফোর্ড ওদ উড
স্প্রে করেও
চাপা থাকে নাকো ?
কসমেটিক কোম্পানি,
তাহলে তোমাদেরও ব্যর্থতা আছে !

এবং কোনো কবিরাজ নয়,
চিকিৎসাবিজ্ঞানীও নয়
ধর্মের নিতম্ব থেকে
এ রোগের জীবাণু
আবিস্কার করেছেন
মহামান্য রাজনীতিবিদগণ;
ছড়াচ্ছেনও তারাই ।