অতিরিক্ত যাত্রী বহনকারী লঞ্চ মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা- নৌ-মন্ত্রী

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্কঃ   অতিরিক্ত যাত্রী বহন করলে লঞ্চ ও মালিকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান।  সোমবার (২০ আগস্ট) বিকেলে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর টার্মিনাল থেকে নৌ-পথে মেঘনা ও গোমতী সেতু পরিদর্শনে যাওয়ার সময় নৌ মন্ত্রী একথা জানান।

নৌ মন্ত্রী আরো জানান, নৌ পথে দূর্ঘটনারোধে ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের সহযোগিতায় নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর সারাদেশেই বিভিন্ন নদীবন্দরগুলো আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। এই নদীবন্দরের লঞ্চ টার্মিনাল থেকে যেসকল লঞ্চ বিভিন্ন রুটে চলাচল করে থাকে সেগুলোর ফিটনেস ও অন্যান্য কাগজপত্র দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ডিজি শিপিংকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

তিনি জানান, এতে পণ্য পরিবহনসহ যাত্রীদের জন্য নানা ধরনের সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা থাকবে। এছাড়া ঝুঁকিপূর্ণ লঞ্চসহ সব ধরনের নৌযান বন্ধ করে নতুন ধরনের আধুনিক লঞ্চ চলাচলে মালিকদেরকে উৎসাহিত করা হবে। তবে এগুলো বাস্তবায়ন করতে কিছুটা সময়সাপেক্ষ ব্যাপার বলে জানান তিনি।

এর আগে নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের লঞ্চ ও খেয়াঘাট ঘুরে দেখেন।

এসময় মুন্সিগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া একটি যাত্রীবাহী লঞ্চের ছাদে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করতে দেখে ওই লঞ্চটিকে থামিয়ে অতিরিক্ত যাত্রীদের তিনি নামিয়ে দেয়ার নির্দেশ দেন।

পরে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর ও নৌ পুলিশ কর্মকর্তারা ওই লঞ্চটিকে আটক করে অতিরিক্ত যাত্রী নামিয়ে দেন। এছাড়া পরবর্তীতে যাতে কোন যাত্রীবাহি লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করা না হয় সে বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেন।

নৌ-মন্ত্রীর পরিদর্শনকালে আরো উপস্থিত ছিলেন বিআইডব্লিউটিএ‘র চেয়ারম্যান কমোডর মোজাম্মেল হক, বিআইডব্লি্উটিসি‘র চেয়ারম্যান মফিজুল হক, বিআইডব্লিউটিএ‘র নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ন পরিচালক মো: গুলজার আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) মো: মাকরুম বিল্লাহ, সদর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা হোসনে আরা বীণা।

পরে মন্ত্রী বাউসিয়া-দাউদকান্দি রুটে ফেরি উদ্বোধন শেষে কাঁচপুর বিআইডব্লিউটিএ ল্যান্ডিং স্টেশন পরিদর্শন করেন।