মাহবুবুজ্জামান সেতু,নওগাঁ প্রতিনিধিঃ

নওগাঁর মান্দায় ৭ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টায় ৬০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধকে আটক করেছে মান্দা থানা পুলিশ। ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে আটক তরকারি ব্যাবসায়ী পরিবারের লোকজনের দাবি মৈনম বাজারে তরকারি বিক্রয়ের জায়গা নিয়ে বিরোধের জের ধরে তাকে পরিকল্পিকভাবে ফাঁসানো হচ্ছে। এঘটনায় এলাকাজুড়ে বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মৈনম-বর্দ্দপুর মোল্লা পাড়া এলাকায়। এঘটনায় ভিকটিমের বাবা মান্দা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন বলে জানা গেছে।

জানাগেছে, ভিকটিমের মা পেশায় একজন দর্জি, আর বাবা একজন ভ্যানচালক। ঘটনার দিন ভিকটিমের মা এবং বাবা কেহই বাড়িতে ছিলেন না বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। তারা ওইদিন তাদের ব্যাবহৃত সিঙ্গার মেশিন ঠিক করতে দুজনে নওগাঁতে অবস্থান করছিলেন। ওই সময় তাদের মেয়েরা বাড়িতে একাকি ছিলো বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা। এ ঘটনায় মান্দা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মতিয়ার রহমান, ওসি শাহিনুর রহমান, ইন্সপেক্টর (তদন্ত) জাহিদ হোসেন এবং ওই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই নজরুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

সরেজমিন গেলে স্থানীয়রা জানান,গত রবিবার (১৫ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার মৈনম ইউনিয়নের মৈনম-বর্দ্দপুর মোল্লা পাড়ার মৃত মমচানের ছেলে তরকারি ব্যাবসায়ী আমান মোল্লা (৬০) লাউ কেনার অযুহাতে একই এলাকার ভ্যানচালক বাবু এবং তার স্ত্রী বাড়িতে না থাকার সুযোগে তাদের বাড়িতে ঢুকে তার মেয়েকে ধর্ষনের চেষ্টা করে । পরবর্তীতে তারা নওগাঁ থেকে তাদের কাজ সেরে বাড়িতে আসার পর প্রতিবেশিদের মাধ্যমে জানতে পেরে ভোলাবাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে ওই লম্পটকে আটক করে থানা পুলিশে খবর দেয়। পরে থানা পুলিশ অভিযুক্ত তরকারি ব্যাবসায়ী আমান মোল্লাকে আটক করে।বর্তমানে মেয়েটি নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি অাছে বলে জানা গেছে।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন , ভিকটিমের বাবা তার শিশু মেয়েকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন। এঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান ওসি।