জয়নাল আবেদীন না‘গঞ্জে জাতীয় পার্টির ভবিষ্যত !

স্টাফ রিপোর্টার(আজকের নারায়নগঞ্জ): জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জাতীয় শ্রমিক পার্টির সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মো. জয়নাল আবেদীন  বলেছেন, আমি দলের জন্য কাজ করি, দলের হয়ে জনগণের জন্য কাজ করি। আর তাই আগামী নির্বাচনে মনোনয়নের ব্যাপারে দল যা সিদ্ধান্ত নেবে তাই মেনে নিয়ে দলের জন্যই কাজ করে যাব। 

রোববার(১৯ আগস্ট) রাত সাড়ে ৮টায় শহরের ১নং রেলগেটস্থ আল-জয়নাল প্লাজায় অবস্থিত পার্টি অফিসে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আহবায়ক কমিটি এবং অন্তর্ভূক্ত প্রতিনিধিদের সাথে মত বিনিময় উক্ত মত বিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি কথা বলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় গার্মেন্টস ও টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশন এর সভাপতি মো. গোলাম কাদির, সদর উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব কাজী দেলোয়ার হোসেন, জাতীয় ইসলামী মহাজোটের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রশিদ জায়েদী, বন্দর থানা জাতীয় শ্রমিক পার্টির সাধারন সম্পাদক আব্দুল মান্নান খান বাদল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা শ্রমিক পার্টির সভাপতি মো. আলী দোলন, সিদ্ধিরগঞ্জ জাতীয় মহিলা পার্টির সভাপতি জাহানারা বেগম সহ বিভিন্ন ওয়ার্ড ও থানা পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

নেতাকর্মীদের সাথে মত বিনিময়কালে সদর উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব কাজী দেলোয়ার হোসেন বলেন, খুব অল্প দিনের মধ্যেই নেতাকর্মীদের মন জয় করে নিয়েছেন আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন। অবহেলিত জাতীয় পার্টি অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা তার মত উদার মনের নেতাকে পেয়ে উচ্ছসিত। তিনি নেতাকর্মীদের মনের ভাষা বোঝেন। প্রয়াত জননেতা নাসিম ওসমানের মৃত্যুর পর বিগত ৪ বছরের অগোছালো দলকে সুসংগঠিত করতে জেলা তৃনমূল পর্যায়ের জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীনের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করা শুরু করেছে। নেতাকর্মীদের একত্রিত করতে মাত্র কয়েকমাসেই তিনি জেলা কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে শুরু করে নারায়ণগঞ্জে জাতীয় পার্টির জন্য একাধিক কার্যালয়ের যে ব্যবস্থা করে চলেছেন তা ইতিপূর্বে কোনো নেতাই করতে পারেন নি। তার এই উদ্যোগেই আমরা নারায়ণগঞ্জে জাতীয় পার্টির ভবিষ্যৎ দেখতে পাচ্ছি।

একইভাবে উপস্থিত অন্যান্য নেতৃবৃন্দও একইভাবে জয়নাল আবেদীনের প্রশংসা করেন তাদের বক্তব্যে।

তারা বলেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এবং সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ যদি জয়নাল আবেদীনের মতো শ্রমিকবান্ধব, জনদরদি এই মানুষটিকে ৫ আসনে নির্বাচনের জন্য মনোনয়ন দেন, তাহলে শুধু নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনই নয়, সমগ্র নারায়ণগঞ্জে জাতীয় পার্টিকে প্রতিষ্ঠা করতে তিনি কাজ করবেন বলে আমরা আশাবাদি।

ইতিমধ্যেই জয়নাল আবেদীন যেভাবে আমাদেরকে একত্রিত করে দলকে সুসংগঠিত করতে নানামুখি কর্মসূচির আয়োজন করে চলেছেন তাতেই এই বিষয়টটি স্পষ্ট। তাছাড়া একজন শ্রমিক বান্ধব ব্যবসায়ী নেতা হিসেবে তিনি তার যোগ্যতার প্রমান রেখেছেন বলেই দল তাকে অল্প কয়েকদিনের ব্যবধানে কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য পদের পাশাপাশি তাঁকে জাতীয় শ্রমিক পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ঘোষণা করা হয়েছে। যা আমাদের নারায়ণগঞ্জের জন্য গর্বের বিষয়। সুতরাং দলের নীতি নির্ধারকরা তাকে মনোনয়ন দিলে তাকে নির্বাচিত করতে দলের স্বার্থে আমরা নেতাকর্মীরা অবিরাম কাজ করে যাব।

মত বিনিময় শেষে তিনি উপস্থিত নেতাকর্মী ও সাংবাদিকদের জন্য নিজ হাতে খাবার পরিবেশন করেন।