স্টাফ রিপোর্টার (আজকের নারায়নগঞ্জ):
বন্দরে উৎসবমুখর পরিবেশ ও নানা আয়োজনে’র মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগ নেতা খাঁন মাসুদ।

বুধবার (১১ নভেম্বর) সকাল ১১টায় বন্দর থানাধীন খাঁন বাড়ি মোড় হতে শান্তি’র প্রতিক পায়রা ও রঙ বেরঙের বেলুন উড়িয়ে এ কর্মসূচি’র আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি বন্দর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তথা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম এ রশিদ।

উদ্বোধন শেষে আগত নেতাকর্মীরা প্রথমে আলোচনা সভা পরে বর্ণাঢ্য র‍্যালীতে মিলিত হয়। র‍্যালীটি খাঁনবাড়ি মোড় হতে বন্দর বাজার হয়ে ১নং খেয়াঘাট এলাকায় এসে শেষ হয়।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এম রশিদ বলেন,বাংলাদেশ সৃষ্টি’র পর ১৯৭২সালে’র এইদিন যুব সমাজকে সঙ্গে নিয়ে সোনার বাংলা গড়ার লক্ষে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে ও অনুপ্রেরণায় শেখ ফজলুল হক মনি’র নেতৃত্বে যুবলীগ গঠিত হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি দেশের যুবসমাজের। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সঙ্গে নিয়ে যুবলীগ তাদের লক্ষ্যমাত্রায় ধাপে ধাপে এগুতে থাকে। কিন্তু মোশতাক বাহিনীর তা সহ্য হয়নি। ঐ কুচক্রী’রা স্বপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে ও জাতীয় চার নেতাকে হত্যা’র পর দেশের যুবসমাজের মধ্যে কোন্দল পাকিয়ে দেন। কিন্তু তাতেও যুবলীগ ভেঙ্গে যায়নি তারা । মানুষকে স্বাধিনতার পূর্ণাঙ্গ স্বাদ দিতে বিভিন্ন সময়ে তারা জেল-জুলুম উপেক্ষা করে রাজপথে লড়াই করে আন্দোলন সংগ্রামে’র মাধ্যমে দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছে।

তিনি আরো বলেন, আশি’র দশকে যেমন আমি নিজেও বন্দর যুবলীগের সভাপতি ছিলাম। তখন আমরা বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী’র হাতকে শক্তিশালী করেছিলাম। যুবসমাজকে স্বাধিনতা’র স্বাদ দিয়েছিলাম। তেমনিভাবে আপনাদেরই ভাই খান মাসুদ যুবসমাজের পাশে থেকে মানুষের অধিকার রক্ষার প্রচেষ্ঠা করে যাচ্ছে।

যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে খাঁন মাসুদের উদ্যোগে আয়োজিত বর্ণাঢ্য র‍্যালীর ভূয়সী প্রশংসা করে বক্তব্য রাখেন, বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধান, মহানগর আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীয়া বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ূণ কবির মৃধা, বন্দর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ছালিমা হোসেন শান্তা, মদনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এম এ সালাম।

এছাড়াও র‍্যালীতে অংশগ্রহণ করেন, ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাসুম আহমেদ, সাবেক ২৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও থানা আওয়ামীলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন আনু, আ’লীগ নেতা মোঃ কাইয়ুম, শহিদুল ইসলাম মৃধা, বন্দর থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নাজমুল হাসান আরিফ, মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দু,কলাগাছিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম কাশেম, বন্দর থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুজাহিদ ইসলাম বিপ্লব, বন্দর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোঃ ফয়সাল কবির, নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আরাফাত রহমান জুম্মান, বন্দর আমিন আবাসিক এলাকা পঞ্চায়েত কমিটির সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান,বন্দর থানা যুবলীগ নেতা মাসুম আহমেদ, ডালিম হায়দার,শেখ মমিন,মোহাম্মদ হোসেন, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সোহেব মোঃ লিটন, বন্দর ইউনিয়ন ১ নং ওয়ার্ড মেম্বার সাব্বির আহমেদ ইমন, বন্দর থানা মহিলা আওমীলীগ নেত্রী সোনিয়া বেগম, নূর ইসলাম, বাবু মোল্লা, আজিজুল হক আজিজ,রয়েল, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সোহেব মোহাম্মদ লিটন, নূরবাগ যুব সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ, যুবলীগ নেতা আকিব হাসান রাজু ও রাজিব সিকদার সায়মন খানসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।