সোনারগাঁ(আজকের নারায়নগঞ্জ): সোনারগাঁ উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়ন যুবদলের আহবায়ক কমিটি ঘোষনার অর্ধঘন্টার পরই যুবদল নেতা মোহাম্মদ বিন ইয়ামিনের পদত্যাগ করেছেন।

গতকাল রাতে থানা যুবদলের আহবায়ক মো. শহিদুল ইসলাম স্বপন ও যুগ্ন আহবায়ক আশরাফ ভুইয়ার স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়।

কমিটি অনুমোদনের পর কমিটিতে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ এনে নিজস্ব ফেসবুকে আইডি ব্যক্তিগত কারন দেখিয়ে পদত্যাগ করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি তরুন্যের দলের ১নং যুগ্ন সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ বিন ইয়াসিন।

বিএনপি নেতারা অভিযোগ করে থানা যুবদলের আহবায়ক শহিদুল ইসলাম স্বপনের কারণে আজ যুবদলের দৈন্যদশা। এ কারণে দিনে দিনে নেতাকমীরা তার বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠছে এবং তার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করার জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন।

সেখানে ইয়ামিন উল্লেখ করেন, হারিয়ে যাওয়ার জন্য সৃষ্টি হইনি, মনে রাখবেন, হারিয়ে যাওয়ার জন্য যতবার আঘাত করা হবে ততবার ই জেগে ওঠবো অদম্য সাহসীকতা নিয়ে, ইন শা আল্লাহ।
তবে দলের সার্থে এতটুকু বলি, একজন নিবেদিত ও নির্যাতিত কর্মীকে দল থেকে দূরে সরিয়ে দেওয়ার জন্য এতটুকু অপমান ই যথেষ্ট..!!
আমার রাজনৈতিক কেরিয়ার ভাল হোক আর মন্দ হোক, আমার একান্ত বিবেচনায় আমি সেচ্ছায় সদ্যঘোষিত সনমান্দী ইউনিয়ন যুদলের কমিটি থেকে পদ ত্যাগ করলাম।
মৃত্যুর ভিড়ে কী সৌভাগ্য, প্রতিদিন বেঁচে থাকি!
রক্তের দামে অশ্রু বেচেছি, নিঃশ্বাসটুকু বাকি।
ভাল থাকবেন সকল গনতন্ত্রকামী সংগ্রামী যুদ্ধারা।
মোহাম্মদ বিন ইয়ামিন
কারানির্যাতিত সাবেক ছাত্রদল কর্মী।
নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখা।

এব্যাপারে যুবদল নেতা মোহাম্মদ বিন ইয়ামিন জানান, তিনি দীর্ঘদিন বিএনপি রাজনীতির সাথে জড়িত। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি তরুন্যের দলের ১নং যুগ্ন সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। রাজনীতি করতে গিয়ে তিনি হামলা মামলা ও কারা বরন করেছেন। বিএনপি রাজনীতির কারণে তিনি কোন সরকারী চাকরীতে যোগদান করতে পারছেনা। রাজনীতি করতে গিয়ে তিনি বারবার নির্যাতিত হয়েছেন। তারপর থানা যুবদলের নেতারা স্বেচ্ছাচারিতা করে তারমতো ত্যাগী নেতাদের নামে মাত্র একটি পদ দিয়ে কমিটি ঘোষনা করেছেন। যাদের পদ-পদবী দেয়া হয়েছে তারা তাদের পরিচিত ও কাছের লোক। তারা বসন্তের কোকিলের মতো দুদিন ধরে রাজনীতিতে এসেছেন। এদের দলের গুরুত্বপুর্ণ পদে অধিষ্ঠিত হয়েছেন। যাদের গুরত্বপুর্ন পদগুলো দেয়া হয়েছে তাদের দ্বারা দল পরিচালনা করা সম্ভব না এবং তাদের মতো নব্য নেতাদের পিছনে রাজনীতি করাও সম্ভব না সেজন্য তিনি স্বেচ্ছায় যুবদলের কমিটি থেকে পদত্যাগ করেছেন।

এব্যাপারে থানা যুবদলের আহবায়ক শহিদুল ইসলাম স্বপনের মন্তব্য পাওয়া যায়নি।