আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যায় নদীতে নৌকা ডুবির ঘটনায় আবু হানিফ হাওলাদার(৩৮) নামের ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে দুইজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে শীতলক্ষ্যা নদীর বন্দর স্কুল ঘাট এলাকা থেকে হোসিয়ারী ব্যবসায়ী হানিফের লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত আবু হানিফের পিতা মোঃ জব্বার হাওলাদার জানান, শরিয়তপুর জেলার নড়িয়া থানার দেওজরী গ্রামে তাদের স্থায়ী নিবাস। দীর্ঘ বছর ধরেই তারা নারায়ণগঞ্জে বসবাস এবং ব্যবসা করেন। তার ছেলে আবু হানিফ স্ত্রী ও ২ ছেলে ১ মেয়েসহ বন্দর উইলসন রোড এলাকার মোঃ হাসানের বাড়ীতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে। গত বৃহস্পতিবার রাতে নন্দীপাড়াস্থ হোসিয়ারী থেকে বাসায় আসার পথে ১ নং খেয়াঘাটের নৌকায় নদী পাড় হওয়ার সময় বালুবাহী ট্রলারের ধাক্কায় নৌকা থেকে নদীতে পড়ে নিখোঁজ হয় আবু হানিফ।

একই দিনে মৃত অপর ব্যাক্তির নাম খলিলুর রহমান(৫৫) বলে জানা গেছে। তিনি বৈশাখি টেলিভিশনের নারায়নগঞ্জ প্রতিনিধি রফিকুল ইসলামের মামা এবং বন্দরের দড়িসোনাকান্দা এলাকার মৃত চান মিয়ার ছেলে।

সে নারায়নগঞ্জের একটি হাসপাতালে মারা গেছে। নৌকা ডুবির পর তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন।

নারায়ণগঞ্জ নৌ থানার ওসি শহিদুল ইসলাম জানান, নৌকা ডুবির ঘটনার দুই দিন পর বন্দর স্কুল ঘাট এলাকার শীতলক্ষ্যা নদী থেকে আবু হানিফ (৩৮) নামের ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ ১০০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য গত ২৯ অক্টোবর রাত সাড়ে ১২টার দিকে শীতলক্ষ্যা নদী পারাপারের সময়ে বাল্কহেডের ধাক্কায় একটি যাত্রীবাহী নৌকা ডুবে গেলে তারা নিখোঁজ হয়।