আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্কঃ স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে গৌরবোজ্জ্বল ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ২০২০ সালের স্বাধীনতা পদক পেলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। এটি দেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক রাষ্ট্রীয় পুরস্কার।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক তাঁর হাতে পদক তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

গোলাম দস্তগীর গাজী নারায়ণগঞ্জ-১ আসন থেকে টানা তিনবার আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন। বর্তমান সরকারে তিনি বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। মুক্তিযুদ্ধে অসীম সাহসিকতাপূর্ণ অবদান রাখায় গাজীকে বীরপ্রতীক খেতাবে ভূষিত করা হয়।

১৯৪৮ সালে ১৪ আগস্ট নারায়ণগঞ্জ জেলায় জন্মগ্রহণ করেন গোলাম দস্তগীর গাজী। তার বাবার নাম গোলাম কিবরিয়া গাজী এবং মায়ের নাম সামসুননেছা বেগম।

গোলাম দস্তগীর পড়াশোনা শুরু করেন পুরান ঢাকার বিদ্যাপীঠে। মাধ্যমিক পাশ করার পর ভর্তি হন নটরডেম কলেজে। ১৯৭১ সালে গোলাম দস্তগীর গাজী ছাত্র থাকাকালীন সময়ে রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধের ২নং সেক্টরে বিভিন্ন সম্মুখ যুদ্ধে বীরত্বের সঙ্গে অংশগ্রহণ করেন।

তিনি ক্র্যাক প্লাটুনের সদস্য হিসেবে প্রশিক্ষণ নেন এবং ঢাকার কয়েকটি সফল অপারেশনে অংশ নিয়েছিলেন।

উল্লেখ্য এর আগে এই জেলা থেকে এই পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিলেন ভাষা সৈনিক একেএম শামসুজ্জোহা (মরোণত্তর)। নারায়ণগঞ্জের দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে এবার এই স্বীকৃতি পেলেন গোলাম দস্তগীর গাজী।