সংঘাত-সংঘর্ষ থেমে নেই রহিম হাজী-সামেদ আলীর আকবরনগরে

 ফতুল্লা(আজকের নারায়নগঞ্জ):  ফতুল্লার বক্তাবলীর আকবর নগরে দফায় দফায় দফায় দফায় ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটছে। শুক্রবার রাতেও রহিম হাজীর পক্ষের লোকজন সামেদ আলী হাজীর পক্ষের সালামের বাড়িতে ভাংচুর ও লুটপাট করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় সেলিনা আক্তার বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় ফুলু মাদবর (৭০),মজিবর (৪৫),গফুর (৫৫),মান্নান(২১),মোঃ কাদির (৩৫),রশিদ (৪৫),সানি (২০),নজরুল (৩৭),সুরজা (১৮),হাসান(১৯),নবী (২৮),কবির(২৫),রোসনা (৩৫),নারগিস (৪০) কে আসামী করে শনিবার একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত মান্নানকে গ্রেফতার করেছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, জয়নাল মন্ডল হত্যাকান্ডের পরও থেমে নেই আকবর নগরে সংঘাত সংঘর্ষ ও লুটপাট। রহিম হাজীর পক্ষের লোকজন প্রতিনিয়ত সন্ত্রাসী সামেদ আলীর আত্মীয় স্বজনদের বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে যাচ্ছে।

শুক্রবার রাতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সেলিনার বাড়িতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রবেশ করে ঘরের মধ্যে সবাইকে জিম্মি করে। এসময় রহিম হাজীর পক্ষের লোকজন ঘরের মধ্যে থাকা আসবাব পত্র ভাংচূড়সহ নগদ টাকা ও গবাদী পশু লুট করে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ। ঘটনার সময় বাড়ির লোকজনের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে মান্নানকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

এব্যাপারে ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শাহ মোহাম্মদ মঞ্জুর কাদের পিপিএম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বাড়ীঘর ভাংচূরের ঘটনায় একটি অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একজনকে আটক করা হয়েছে।