বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদীর নেতৃত্বে বন্দরে বর্নাঢ্য জশনে জুলুস

বন্দর(আজকের নারায়নগঞ্জ): বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা ও বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে বন্দরে ৪৬তম ঐতিহাসিক জশনে জুলুস ঈদ এ মিলাদুন্নবী (সাঃ) উদযাপিত হয়েছে।

মঙ্গলবার(২৭অক্টোবর) সকাল ১০টায় মদনগঞ্জ বটতলাস্থ্য আসাদ প্রধানের চেম্বার থেকে জশনে জুলুস শোভাযাত্রা শুরু হয়ে বন্দরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে কদমরসূল দরগাহ শরীফে আখেরী মোনাজাতের মধ্যদিয়ে সমাপ্ত হয়।

জশনে জুলুস ঈদ এ মিলাদুন্নবী (সাঃ) শোভাযাত্রায় নেতৃত্বদান এবং আখেড়ী মোনাজাত পরিচালনা করেন আওলাদে রাসুল পীরে কামেল আল্লামা সৈয়দ বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদী আল আবেদী (মা.জি.আ.)।

৪৬তম ঐতিহাসিক জশনে জুলুসে সভাপতিত্ব করেন উদযাপন কমিটির সভাপতি মোবারক হোসেন কমল খান। জশনে জুলুস শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান ও বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ এম এ রশীদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পীরজাদা সৈয়দ জাহের শাহ মোজাদ্দেদী আল আবেদী (মা.জি.আ.)।

মঙ্গলবার সকাল থেকে হাজার আশেকে রাসুল ধর্মপ্রান মানুষ মদনগঞ্জ বটতলায় ব্যানার, ফেস্টুন, মাইক নিয়ে জড়ো হয়ে জশনে জুলুস শোভাযাত্রার প্রস্তুতি নেয়।

সকাল ১০টায় জশনে জূলুস মিছিল মদনগঞ্জ বটতলা থেকে শুরু হয় এসময় উপস্থিত ছিলেন, জুলুস উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাজী আসাবুদ্দিন আশু, বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব কাজীম উদ্দিন প্রধান, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফয়সাল মোহাম্মদ সাগর, মাওলানা তামিম বিল্লাহ আল কাদরী, আনোয়ার হোসেন প্রধান, যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুর রহমান কমল, শরীফ হাসান চিশতি, সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিম দেওয়ান, প্রচার সম্পাদক সোহেল খান, ইসলামী ছাত্র সেনা নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি রাহাত হাসান রাব্বি প্রমুখ।

বর্নাঢ্য জশনে জুলুস শোভাযাত্রায় এলাকায় হাজার হাজার নর নারী ফুলের পাপড়ী ছিটিয়ে রাসুল (সাঃ) এর আগমনের আনন্দে উদযাপিত জুলুসকে অভ্যর্থনা জানায়।
এরপর নবীগঞ্জ বাগ এ জান্নান কবরস্থানে এসে কবরবাসীদের জন্য বিশেষ দোয়া করেন আওলাদে রাসুল আল্লামা বাহাদুর শাহ। বন্দরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে কদমরসূর রসুল দরগাহ প্রাঙ্গনে জশনে জুলুস শোভাযাত্রা শেষ হয়ে দরগাহ মসজিদ প্রাঙ্গনে ঈদ এ মিলাদুন্নবীর (সাঃ) এর উপর আলোচনা ও আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন আওলাদে রাসুল পীরে কামেল আল্লামা সৈয়দ বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদী আল আবেদী (মা.জি.আ.)।
এসময় উপস্থিত ছিলেন জশনে জুলিুস কমিটির সাবেক সভাপতি আলহাজ¦ সিদ্দিকুর রহমান সেক্রেটারী, মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা শরীফউল্লাহ শাহিন, মোতাওয়াল্লী কমিটির নজরুল ইসলাম, রবিউল আউয়াল, শামিউল ইসলাম উচ্ছাস, আরাফাত হোসেন জুবায়ের প্রমুখ। উল্লেক্য যে, ১৯৭৪ সালে রাসুল (সাঃ) এর ৪০তম বংশধর জশনে জুলুসে ঈদ এ মিলাদুন্নবী (সাঃ) এর প্রতিষ্ঠাতা আকবু নসর সৈয়দ মোঃ আবেদ শাহ আল মাদানী (রঃ) এর নেতৃত্বে সর্বপ্রথম বন্দরে জশনে জুলস শোভাযাত্রা উদযাপন করা হয়, এ বছর ৪৬তম জশনে জুলুস উদযাপিত হয়।

বন্দরে ৪৬তম বর্নাঢ্য জশনে জুলুস উদযাপিত