সিদ্ধিরগঞ্জে চোরাইতেলসহ সিরাজ মন্ডলের ভাই গ্রেফতার

সিদ্ধিরগঞ্জ(আজকের নারায়নগঞ্জ): নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানে বিপুল পরিমাণ চোরাই তেলসহ আওয়ামী লীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম মন্ডলের ছোট ভাই আটক হয়েছেন।

সোমবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের এসও রোডের মেঘনা ওয়েল ডিপো এলাকায় অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় ১১৫০ লিটার চোরাই তেলসহ মাহবুবুর রহমান মামুনকে (৪৫) আটক করে র‌্যাব।

আটক মামুন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন সংগঠনের নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মন্ডলের ছোট ভাই।

অভিযান শেষে র‌্যাব-১১ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন চৌধুরী প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানান, দুপুর দেড়টার দিকে এসও রোডের মেঘনা তেল ডিপো এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাবের একটি দল। এ সময় ৭টি ড্রামভর্তি ১১৫০ লিটার চোরাই তেল জব্দ করা হয়।
চোরাই তেল চক্রের সাথে জড়িত থাকায় আটক করা হয় মাহবুবুর রহমান মামুনকে। চোরাই সিন্ডিকেটের আরেক সদস্য আরিফ (৩৫) পালিয়ে গেছে বলেও জানায় র‌্যাব।

প্রাথমিক অনুসন্ধানের ভিত্তিতে র‌্যাব জানায়, সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইল এলাকায় অবস্থিত মেঘনা ও পদ্মা ডিপোকেন্দ্রিক বেশ কয়েকটি চোরাই তেলের সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। এই ডিপোগুলো হতে প্রতিদিন শত শত তেলের লরি তেলভর্তি করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে যায়। এই সিন্ডিকেটের কাছে কিছু অসাধু লরির ড্রাইভার ও হেলপার নামমাত্র মূল্যে তেলভর্তি লরি থেকে চুরি করে তেল বিক্রি করে। চোরাই চক্র এই তেলের সাথে ভেজাল তেল মিশিয়ে বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের কাছে সরবরাহ করে। এই তেল ব্যাবহার করে গাড়ীর ইঞ্জিন ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হচ্ছে।
আটক মাহবুবুর রহমান মামুনকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে ও পলাতক আসামি আরিফ (৩৫) আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য দীর্ঘদিন যাবৎ তেল চুরির অবৈধ সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে। তারা অভিনব কৌশলে অবৈধ উপায়ে জ্বালানী তেল সংগ্রহ এবং ঝুঁকিপূর্ণভাবে মজুদ করে অবৈধভাবে কেনাবেচা করে আসছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে। আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন জানান র‌্যাব-১১ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন।

উল্লেখ্য, এর আগে গতকাল (২৫ অক্টোবর) একই এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩৭ টি ড্রামভর্তি ৭৬৬০ লিটার চোরাই তেল উদ্ধারসহ মো. শাহাজাহান (৩৫) নামে চোরাই চক্রের সক্রিয় এক সদস্যকে আটক করে র‌্যাব।