আমাকে জাগিয়ে রাখে শ্রাবণের অন্ধপূর্ণিমা

 

আমিনুল ইসলাম

আকাশ-শাওয়ার খোলা ট্যাক্সফ্রি ঝরে জলধারা
ডাহুক দম্পতি আর বৃক্ষরাজি ভেজে গণস্নানে
শিউলির কটি ধরে ভেজাহাতে হাওয়া দেয় নাড়া
তাই দেখে বেণুবন ঝুঁকে পড়ে সমবেত গানে।

মৃত্তিকার জননাঙ্গে অঙ্কুরিত জীবনের বীজ
শিশুর উঠোনে তাই বাড়িতেছে সবুজ সম্ভার
চলনবিলের ঘরে হাসিতেছে বয়দা সিরিজ
আমারো সময় ছিল, আজ নেই, আইলবান্ধার।

গেরস্ত ঘুমিয়ে, তার স্বপ্ন ছুঁয়ে হেমন্তের দিন
শিউলির স্বপ্নমুখে ধাবমান শরতের সীমা
কাঁশবনে স্বপ্ন সাদা; এই শুধু আমি স্বপ্নহীন
আমাকে জাগিয়ে রাখে শ্রাবণের অন্ধপূর্ণিমা।

বাতাস শোনায় আজ– বিরহের আসলে কী মানে
বিপ্রতীপ সংখ্যালঘু– আমিও যে মিলনের রাতে
সেদিন বুঝিনি আমি, বুঝি আজ ফিরোজার গানে
‘অঝোর ধারায় বর্ষা ঝরে সঘন তিমির রাতে।’