১৫ আগষ্ট কালরাতে আমাদের স্বপ্ন কেড়ে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা- ডিসি রাব্বি মিয়া

নগর সংবাদ(আজকের নারায়নগঞ্জ):  জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া বলেন, আমি বিশ্বাস করি ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধু যে পথ দেখিয়ে ছিলেন ও তার সিদ্ধান্তে বাংলাদেশ স্বাধীনতা পেয়েছে। তার পরবর্তী স্বপ্ন ও দেখানো পথই ছিল, ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন। কিন্তু সেই ১৫ আগষ্টের কাল রাত ছিনিয়ে নিয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে। সঙ্গে সঙ্গে কেড়ে নিয়েছে আমাদের স্বপ্ন। তবে সেই স্বপ্নের বাংলাদেশ পেতে হলে শোক দিবসকে শক্তি রুপান্তরিত করতে হবে।
বুধবার (১৫ আগষ্ট) নারায়ণগঞ্জ রাইফেল ক্লাবে স্বাধীনতা মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর এর ৪৩ তম শাহাদাত বার্ষিকী তে জাতীয় শোক দিবস ২০১৮ পালন উপলক্ষে আলোচনা সভা, পুরষ্কার বিতরণ এবং যুব ঋণের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এই সব কথা বলেন।
তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন কোন স্বপ্ন হয় এটা এখন বাস্তবতা। বাংলাদেশের মানুষ ডিজিটিাল বাংলাদেশ করার বিষয়ে অনেক সচেতন। ২০১৮ সালের সিদ্ধান্তে আমরা পৌছায় যাব মধ্যম আয়ের দেশে উন্নত বাংলাদেশের দ্বার প্রান্তে যেই স্বপ্ন কখনো বঙ্গবন্ধু দেখে ছিলেন। আমরা যারা সরকারি বিভিন্ন পদে কাজ করি। আমাদের আমাদের দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করতে হবে যেন ডিজিটাল বাংলাদেশে কিছুটা অবদান রাখতে পারি। যেন বঙ্গবন্ধুকে যেভাবে কোটি কোটি মানুষ স্মরন করে আমরাও ডিজিটাল বাংলাশে এমন কিছু অবদান রেখে যাব যেন আমাদের মৃত্যুর পরেও আমাদেরও বেশি না হলেও দুই একজন মানুষ শ্রদ্ধা করে স্মরণ করে। ডিজিটাল বাংলাদেশে আরেক নতুন অধ্যায় রচনা করে আগামী ২০১৯ সালের শোক দিবস আমদের একটা চমৎকারে পরিবেশে জাতীয় শোক দিবস উদযাপন করতে হবে।
এ সময়ে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার, বিপিএম, পিপিএম মঈনুল হক, রযাব-১১ (ভারপ্রাপ্ত) অধিনায়ক পিবিজিএমএস, এসি মেজর আশিক বিল্লাহ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জসীম উদ্দীন হায়দার, সিভিল সার্জন মো. এহেসানুল হক, গনপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহাবুবুর রহমান, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. শাহাজাহান।