ভাগ্যে থাকলে কালাম এমপি হয়েও যেতে পারে- অসীম কুমার উকিল

সোনারগাঁ(আজকের নারায়নগঞ্জ):  বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল বলেছেন, ‘মাহফুজুর রহমান কালাম একজন দক্ষ সংগঠক। দুঃসময় থেকে শুরু করে সে অনেক দিন যাবত দলকে আগলে রেখেছে। বিএনপি জোট সরকারের আমলে সে নির্যাতিত হয়েছে।

তৃণমূলের কাছে তার ব্যাপক জনপ্রিয়তা আজ দেখে গেলাম। আমি কালামের জনপ্রিয়তা নিয়ে নেত্রীর সঙ্গে কথা বলবো। ভাগ্যে থাকলে সেও এমপি হয়ে যেতে পারে।’

রবিবার সকালে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প জাদুঘরে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট সোনারগাঁ উপজেলা শাখার উদ্যোগে আয়োজিত দিনব্যাপী রক্তদান কর্মসূচী ও শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অসীম কুমার উকিল এসব কথা বলেন।

এসময় প্রধান আলোচকের বক্তব্যে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও আসন্ন নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মাহফুজুর রহমান কালাম বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে লালন করে ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনীতি শুরু করে ধাপে ধাপে এ পর্যায়ে পৌঁছেছি।

বিএনপি জামায়াত জোট সরকারের আমলে যখন আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের উপর মামলা-হামলা সহ নির্যাতনের স্ট্রীম রোলার চালানো হয়েছে তখনও আমি রাজপথে ছিলাম। দলের দুঃসময়ে তৃণমূল নেতাকর্মীরা আমাকে পাশে পেয়েছে এবং ভবিষ্যতেও পাবে।
আমি আশাবাদি যে, আসন্ন নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনে নৌকার মনোনয়ন দেন তাহলে আমি তাকে এ আসনটি উপহার দিতে পারবো ইনশাআল্লাহ।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট সোনারগাঁ উপজেলা শাখার সভাপতি আজিজুল ইসলাম মুকুলের সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- নারায়ণগঞ্জের সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বাবলী, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা, কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক বিষয়ক উপ-কমিটির সাধারণ সম্পাদক রতন দত্ত, রনি নন্দি, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট সোনারগাঁ উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম।

আরো বক্তব্য রাখেন- নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য ও সোনারগাঁ উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট নূরজাহান, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী যুব আইনজীবি পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী, জামপুর ইউপি চেয়ারম্যান হামীম শিকদার শিপলু, সনমান্দী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান হাজী শাহাবুদ্দিন সাবু, সনমান্দী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজী ইসহাক মিয়া, শম্ভুপুরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আবু সিদ্দিক মোল্লা, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাসেল মাহমুদ, পৌরসভা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী আমজাদ হোসেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা তাঁতীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি দেওয়ান কামাল প্রমুখ।

এসময় উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা খোরশেদ মোল্লা, সামসুজ্জামান সামসু, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সভাপতি আব্দুল কাদির জিলানী, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহমুদুল হাসান দুলাল, উপজেলা শ্রমিকলীগ নেতা মোবারক সরকার, জামপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা গোলজার হোসেন, আব্দুন নূর, আল-আমীন’সহ উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, কৃষকলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও তাঁতীলীগ’সহ অন্যান্য অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।