লাইসেন্স ও ফিটনেস নবায়নের হিড়িক পড়েছে- সেতুমন্ত্রী

 সারাবাংলা(আজকের নারায়নগঞ্জ):  শিক্ষার্থীদের গঠনমূলক আন্দোলনের কারণে আজ বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের-বিআরটিএ’র অফিসগুলোতে লাইসেন্স ও ফিটনেস নবায়নের হিড়িক পড়েছে। দিনের অতিরিক্ত সময় কাজ করেও শেষ না হওয়ায় হিমশিম খেতে হচ্ছে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের। টনক নড়েছে পরিবহন শ্রমিক ও মালিকদেরও। বললেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
ঈদকে সামনে রেখে শুক্রবার বিকেলে সাভারে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের নবীনগরে ফিটনেসবিহীন যান ও লাইসেন্সবিহীন চালকদের কাগজ পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।
নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে অবশ্যই রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা ছিল বলে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আন্দোলনের নাশকতায় শিক্ষার্থীরা জড়িত নয়, অছাত্রদের কাঁধে ব্যাগ ঝুলিয়ে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার হামলা চালানো হয়েছে। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
ধানমণ্ডির আওয়ামী লীগ অফিসে যারা ভাংচুর ও হামলা চালিয়েছে তারা কোনও ছাত্র হতে পারে না উল্লেখ করে মন্ত্রী আরও বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই হামলা হয়েছে। তাই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
মন্ত্রী বলেন, এবার ঈদকে সামনে রেখে বাংলাদেশের মহাসড়কগুলোতে ২৩টি সেতু একযোগে খুলে দেয়া হবে। ফলে সড়কে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ থাকবে না। তবে গরুবাহী যানের কারণে যানজট না হয়ে ধীরগতি থাকতে পারে।
তিনি আরও বলেন, গত ঈদের মতো এবারও রাস্তা সচল থাকবে এবং যাত্রীরা স্বস্তিতে যাত্রা করতে পারবে। দুর্ভোগ কমাতে ঈদের চার দিন আগ থেকে মহাসড়কের চন্দ্রা, কোনাবাড়ি, মেঘনা, গোমতি ও ভোলতাসহ বিভিন্ন স্থানে র‌্যাব মোতায়েন করা হবে।