তোমাকে আড়াল করে তোমার কুয়াশা

 

– আমিনুল ইসলাম

তুমি কতনা স্বপ্নে সম্ভাবনার ডালি নিয়ে
এসেছিলে কাছে !
এতকিছু নিয়েও আমার এই মৃন্ময় অভিলাষ
ভিখেরির মতো চায় তোমার রাঙারসের কোয়া।
দামের কথা বলছো?
আমার তো কোনো বোখারা সমরখন্দ ছিল না;
থাকলে আমিও হাফিজের মত কিছু একটা
হুলস্থূল বাঁধিয়ে দিতে পারতাম,
যদিও রাজ-নকরী হারানোর ঝুঁকিটা
আমাকেও কাঁপিয়ে তোলে সমূলে!
আমার এই আনত চোখ–
এ আমার অনিচ্ছার চাপে নুয়ে পড়া নয়;
বরং তোমার চোখে পঠিত হওয়ার লোভে
এ আমার সোমপুর বিহার মেলে দেয়া।
তোমার চোখ থেকে ঠিকরে পড়া কণা,
যা তুমি নিজেই দ্যাখো কি না জানি না,
নিভৃত মন্দিরের গুপ্ত আলোয় হীরকখন্ড হয়ে জ্বলে।
শ্রীজ্ঞানের পাঠশালা নিয়ে বুকে,
বলো! একে আলোর ছলনা বলি কী প্রকারে?
অথবা আমারই মনের ভুল?

একবার, দুইবার, তিনবারও এসেছো–
কোনো কোনো দিন।
লাল ফিতা বাঁধিয়াছে সব; আমাদের বাহানা বাঁধেনি।
আমার হাতে প্রাত্যহিকতার পৌনঃপুনিকতা;
আর তোমার আঁচলে ঈদ বোনাসের হাওয়া।
যতবার এসেছো–
আমার মাচানে উৎসব লেগেছে।
দ্যাখো– আমার সকল সবুজে
ওই রাঙাছাপ ফলে উঠেছে আজ।

অথচ এসবই প্রয়োজনের সীমাবদ্ধতায়–
ঘটে যাওয়া শুধু?

কুয়াশার রঙ দেখে বুঝতে পারি–
বসন্ত আর কতদূর।
তুমি এতবার আসো– এতোটা কাছে!
অথচ বুঝতে পারি না– আসিয়াছো কি না!