” পাথর মানুষ “

–গোলাম কবির

না, আমি অমলকান্তির
মতো রোদ্দুর হতে চাই
নি, আমি চাই নি মেঘ
হয়ে আকাশে ভেসে
বেড়াতে অথবা কখনো
অভিমানে অঝোর ধারায়
ঝরতে। আমি চাই নি
তৃতীয় বিশ্বের কোন
উচ্চাকাঙ্খী সামরিক
অফিসারের মত জোর
করে রাষ্ট্রের সর্বময়
ক্ষমতার অধিকারী হতে।
আমি চাই নি কোনো
জননন্দিত নায়ক, গায়ক
কিংবা কোনো জনপ্রিয়
কবি হতে, আমি চাই নি
হতে রবীন্দ্রনাথের ” দুই
বিঘা জমি “র জমিদার,
চেয়েছিলাম শুধু মানুষ
হয়ে মানুষের মতো
বাঁচতে। কিন্ত কি হলাম?
না পারলাম মানুষ হয়ে
মানুষের মত বাঁচতে! না
পারলাম কোন জন্তু হয়ে
বনে বাস করতে দুর্দান্ত
প্রতাপে? আমি কেবল
পাথর মানুষ হয়ে রয়ে
গেলাম পথের মাঝে!
না হয় এতো যে
অমানবিক আচরণ
করছে
মানুষ দেশে দেশে, চলছে
যুদ্ধ, ধর্ষণের অপমানে
আত্মাহুতি দিচ্ছে নারীরা,
কৃত্রিম খাদ্য সংকট তৈরী
করে মানুষ হত্যায়
উল্লাসে নাচছে
আগ্রাসনবাদী রাষ্ট্র গুলো,
আমি কেন তবে হই না
প্রবল প্রতিবাদের
সাইক্লোন? হায়! আমি
কেবল
পাথর মানুষ হয়ে রয়ে
গেলাম পথের মাঝে!