“খোয়াই নদী “

–গোলাম কবির

শান্ত সুনিবিড় ছায়া ঘেরা গ্রামের মেঠো পথ জানে,

কত গুলো ধূলোর পথ মাড়িয়ে,
গ্রামের শেষমাথার বুড়ো অশ্বত্থের নীচে
কতটা অলস সময় কাটিয়ে,
সবুজ ঘাসের বুকে শিশিরের রেণু মেখে
তারপর পৌছাতে হয় তোমার কাছে,
আমিও জানি তা।
বালিকা মেঘের ভেলায় ভেসে ভেসে,
আবার কখনো তপ্ত রোদের চোখ রাঙানো
উপেক্ষা করে, পাতার বাঁশি হাতে রাখাল
হবার সাধে, একদিন তোমাকে চমকে দেবো বলে
কি প্রাণান্ত চেষ্টাই না করেছিলাম সেদিন!
সেদিন তোমার খিলখিল হাসিতে ফেটে পড়া

দেখে আমার কেবলই খোয়াই নদীটার কথা
মনে পড়ে যায়, মনে পড়ে যায়!