বরিশাল সিটিঃ ভোটের মাঠ ছাড়লেন বিএনপির সরোয়ার

সারাবাংলা(আজকের নারায়নগঞ্জ):  কেন্দ্র দখলের অভিযোগ তুলে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।

আজ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে বরিশাল প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ ঘোষণা দেন তিনি। নির্বাচন স্থগিত করার আহবানও তিনি নির্বাচন কমিশনের কাছে জানিয়েছেন।

এ সময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, বেলা সাড়ে ১১টার মধ্যে নগরীর ৮০টির বেশি কেন্দ্র দখলে নিয়ে নিয়েছে ক্ষমতাসীন দলের কর্মীরা। তারা সেখানে প্রকাশ্যে ব্যালট পেপারে নৌকা প্রতীকে সিল মেরে বাক্সে ফেলছে।

এছাড়া তিনি ভোট কারচুপি, এজেন্টদের মারধর ও কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগও তোলেন। তিনি রাতে ভোট মারার অভিযোগও করেন।

এর আগে ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থীও ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

এর আগে সকাল ৮টা ৫০ মিনিটে সৈয়দা মজিদুন্নেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নিজের ভোট দেন। সেসময় তিনি বলেন, বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে আমার ৫০ জন পোলিং এজেন্টকে বের করে দেয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে প্রধান ভূমিকা পালন করেছে পুলিশ। যেখানে পুলিশের আমার এজেন্টদের সুরক্ষা দেয়ার কথা সেখানেই তারাই বের করে দিচ্ছে।

তিনি বলেন, ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতাকর্মীরা বিভিন্ন কেন্দ্র পাহারা দিচ্ছে। সেখানে বিএনপির নেতা কর্মীদের, এমনকি ভোটারদেরও ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। এক্ষেত্রে আবার ছাত্রলীগ বা যুবলীগকে পুলিশ বাধা দিচ্ছে না।
মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, হাইকোর্টের নির্দেশ আছে যেন বিএনপির নেতাকর্মীদের অযথা হয়রানী করা না হয়। যেখানে তারা হাইকোর্টের আদেশই মানছে না সেখানে কমিশনে অভিযোগ দিয়ে লাভ নেই।
তিনি বলেন, কোনও অভিযোগই তারা আমলে নেননি। এ অবস্থা আমি নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছি।