নওগাঁর মান্দায় ভাতিজার বটির আঘাতে চাচা নিহত!

 

নওগাঁ থেকে মাহবুবুজ্জামান সেতু(আজকের নারায়নগঞ্জ): নওগাঁর মান্দায় ভাতিজার বটির আঘাতে চাচা শাহিনুর রহমান (৪০) মারাত্নক জখম হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। রবিবার ভোর রাতে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি মারা যান।
শাহিনুর রহমান উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়ের শ্রীরামপুর গ্রামের মৃত হোসেন আলীর ছেলে এব। ভাতিজা জোবায়ের হোসেন পলু (২৫) গ্রামের মৃত রহিমুদ্দিনের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জমিজমা নিয়ে পারিবারিক ভাবে চাচা শাহিনুর রহমানের সাথে বিরোধ চলছিল ভাতিজা পলুর।

গত ০৩ জুন দুপুরে ধান শুকানোর জন্য মই দিয়ে শাহিনুরের বাড়ির ছাদে উঠে পলুর মা জুলেখা বিবি। এসময় পলু বাড়িতে বটিতে বালু দিয়ে ধার দিচ্ছিলেন। আর চাচা শাহিনুর এসে মই সরিয়ে নেয়, যেনো ভাবি জুলেখা ছাদ থেকে নামতে না পারে।

এ নিয়ে চাচার সাথে ভাতিজার বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে ভাতিজা পলু বট দিয়ে চাচা শাহিনুরের মাথায় এবং পেটে আঘাত করে।

গুরতর আহতবস্থায় শাহিনুরকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে কয়েকদিন থাকার পর তাকে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়।

বাড়িতে কয়েকদিন অবস্থানের পর আবারও তিনি অসুস্থ হলে গত শুক্রবার বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

গত জুন মাসেই নিহতের বড় মেয়ে মৌসুমী আক্তার বাদী হয়ে ভাতিজা জোবায়ের হোসেন পলু ও তার মা জুলেখা বিবির নামে নওগাঁ আদালতে মামলা করেন।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) মাহাবুব আলম বলেন, পারিবারিক ভাবে লাশ দাফনের প্রক্রিয়া চলছিল। বিষয়টি জানার পর রবিবার সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।