“অনাহুত দিন শেষে”

 ডাঃ গোলাম রহমান ব্রাইট

.
হৃদয় কাননে জ্যোৎস্না স্নাত মাধবীলতার নৃত্য
অনুভূতির শিহরণ নিভৃত কোন ক্ষণে আবৃত
অলস প্রহরে স্বপ্ন বিলাস নিষ্ফল বিষাদের ঢেউ
কখনো সঙ্গোপনে কখনো অকপটে ভাসে কেউ।
.
প্রণয় কাননে বিরহ অনল ঝরে সুবাসিত ফুলে
মিথ্যে অহমিকায় লুণ্ঠিত দুরাত্মার দুঃস্বপ্ন ভুলে
বৈরী বাতাসে বিলাপের সুর যেন বর্ষণ হয়ে ঝরে
অস্পষ্ট অনুভবে আর্তনাদ ; নিস্তব্ধ আঁধার ঘরে।
.
বিষণ্ন মনে শূন্যতার আস্ফালন ভীষণ জাপ্টে ধরে
অপেক্ষমাণ মুহূর্তগুলো জাগ্রত বেদনায় ওঠে ভরে
তাপিত হৃদয়ের বিক্ষত জমিনে বিষাদিত রোদন
ব্যাকুলতায় প্রহর গুনছি মম অতৃপ্ত মন-বদন।
.
অশ্রুসিক্ত বিষাদময় বালুচরে স্বপ্ন হয় বিভীষিকা
যোজন দূরত্বে অতি সন্তর্পণে আত্মার যবনিকা
বুকফাটা আর্তনাদে কাঁদি অনাহুত দিন শেষে
একাকিত্বের নীলে ডুবি থাকতে পারিনা ভেসে।
.
অম্বর জুড়ে নিত্য লীলা হরষিত চিত্তে করে খেলা
বার-বার ফেরে কিছু স্মৃতি আক্ষেপে কাটে বেলা
উপলব্ধির চাদরে অদ্ভুত যন্ত্রণায় আকণ্ঠ ভাবনা
হৃদয়ের সীমান্তে প্রেম এসে ভিড়ে,তারে পাব না।
.
আবেগি মনে উচ্ছল প্রেম নিরব অভিমানে কাঁদে
স্বপ্নহীন আঁধারে অনুভূতির ঘোর কেটে যায় চাঁদে
স্মৃতির ভাঁজে লুকানো অপূর্ণতা বিষাদের স্রোতধারায়
মায়াবী স্পর্শের তীব্র আকাঙ্ক্ষায় সবই শুধু হারায়।
.
ভালোবাসা সে-তো মরীচিকা,নির্লিপ্ত মগ্নতায় জীবাত্মা
বিনিদ্র প্রহরে নিঃশেষে বিলীন হয় যেন অন্তরাত্মা।
.
তারিখঃ ২৯/০১/২০২০ ইং

নাবিহা ফ্যাশন হাউস
ফরিদপুর, জহুরনগর, কালিগঞ্জ, সাতক্ষীরা।